১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:০৭

গৌরনদীতে ফিল্মি স্টাইলে অপহরন হওয়া এসএসসি পরীক্ষার্থী ৪৮ঘন্টা পর উদ্ধার : অপহরনকারী গ্রেফতার

 

বিশ্বজিত সরকার বিপ্লব,গৌরনদী (বরিশাল) সংবাদদাতা : প্রকাশ্য বিবালোকে ফিল্মি স্টাইলে মায়ের কাছ থেকে অপহরন হওয়া এস,এস,সি পরীক্ষার্থী তাহসিন ইসলাম নাফরিনকে অপহরনের ৪৮ঘন্টা পর বরিশালের গৌরনদী মডেল থানা পুলিশ গতকাল শনিরার দুপুরে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া থেকে উদ্ধার ও অপহরনকারী আশিক ফকির এবং তার সহযোগী বাবুকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।

গৌরনদী মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিন চাঁদশী গ্রামের কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদ সিকদারের মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী তাহসিন ইসলাম নাফরিন বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে সাধারন বিজ্ঞান পরীক্ষা শেষে উপজেলার পালরদী মডেল স্কুল এ্যন্ড কলেজ কেন্দ্র থেকে তার মা লিপি আক্তারের সাথে রিকশা যোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়। পথিমধ্যে দুপুর ২টার দিকে তাদেরকে বহনকারী রিকশাটি উপজেলার চাঁদশী এলাকার হানিফার দোকানের কাছে পৌছলে উপজেলার কসবা গ্রামের মন্টু ফকিরের ছেলে বখাটে আশিক ফকিরের নেতৃত্বে ৪টি মোটরসাইকেল যোগে ১০/ ১১জন বখাটে যুবক পেছন দিক থেকে এসে ফিল্মি স্টাইলে তাদের রিকশাকে ঘেড়াও করে ফেলে।

এরপর তারা রিকশায় মায়ের পাশে বসা নাফরিনকে ছিনিয়ে নিয়ে জোর পূর্বক একটি মটরসাইকেলে তুলে পালিয়ে যায়।ঘটনার পর অপহৃতা নাফরিনের মা লিপি আক্তার বাদি হয়ে ওইদিন বিকেলে অপহরনকারী আশিক ফকিরসহ অজ্ঞাতনামা ১১ জনকে আসামী করে গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর অপহৃতাকে উদ্ধার ও বখাটেদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযানে নামে। তারা বিভিন্ন এলাকায় অভিযান ও তল্লাসী চালায়।

এ অভিযানের ধারাবাহিকতায় গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গৌরনদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আফজাল হোসেনের নেতৃত্বে থানার এসআই মুজাহিদুল ইসলাম, এসআই মাজাহারুল ইসলাম ও এএসআই আমিনুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ গতকাল শনিবার দুপুর ২টার দিকে পার্শ্ববর্তি গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া থানা পুলিশের সহয়তায় কোটালীপাড়া উপজেলার শুয়াগ্রাম গ্রামের নারায়ন বাজার এলাকায় অভিযান চালায়।

এ সময় ওই বাজারের প্রত্যাশা ষ্টুডিও এ্যান্ড কসমেটিকস দোকানের সামনে থেকে ভিকটিম তাহসিন ইসলাম নাফরিনকে উদ্ধার ও অপহরনকারী আশিক ফকির (২২) ও তার সহযোগী একই গ্রামের মোঃ মজিবর সরদারের ছেলে বাবু সরদার (২২)কে গ্রেফতার করে।

গৌরনদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আফজাল হোসেন জানান, অপহৃতাকে অন্যত্র সড়িয়ে নেয়ার জন্য অপহরনকারীরা ওই দোকানের সামনে বসে একটি মাইক্রোবাস ভাড়ার চেষ্টা করছিল।

এ সময় আমরা তাদেরকে গ্রেফতার করি। উদ্ধারের পরপরই অপহৃতাকে বরিশাল জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আজ রোববার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:০৫