১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:২৮

অটোরিকশা থেকে নামিয়ে নারী চিকিৎসককে গণধর্ষণ, আটক ৩

 

ডেস্ক নিউজ : রাজবাড়ী থেকে ফরিদপুর আসার পথে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে এক নারী চিকিৎসককে (২৪) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় র‌্যাব অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করেছে। ওই নারী চিকিৎসক বাদী হয়ে রবিবার সকালে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। 

আটকরা হলেন, রাজবাড়ী সদর উপজেলার খান খানাপুর ইউনিয়নের দত্তপাড়া গ্রামের আরশাদ মোল্যার ছেলে মামুন মোল্যা (২০), সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের মৃত মুন্নাফ সরদারের ছেলে হান্নান সরদার (৩০) ও একই মৃত আবুল মোল্যার ছেলে রানা মোল্যা (২৫)।

গণধর্ষণের শিকার ওই চিকিৎসক জানান, তিনি ঢাকা থেকে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় এসে নেমে ফরিদপুরে যাওয়ার জন্য গাড়ি খুঁজতে ছিলেন। এসময় এক অটোরিকশা চালক তাকে বলেন, ‘এখান থেকে ফরিদপুরের গাড়ি পাওয়া যাবে না। আমার অটোতে উঠেন। শিবরামপুর গেলে ফরিদপুরের গাড়িতে উঠিয়ে দেবো।’ এসময় আমি অটোরিকশায় উঠি।

অটোরিকশায় চালক ছাড়াও আরও দু’জন যুবক ভেতরে বসা ছিল। অটোরিকশাটি গোয়ালন্দ মোড় থেকে ফরিদপুরের শিবরামপুরের মাঝামাঝি নির্জন জায়গায় পৌঁছালে সেটি দাঁড় করিয়ে চালকসহ তিনজন এবং অজ্ঞাত আরও ৩/৪ জন মিলে রাস্তার পাশে পর্যায়ক্রমে গণধর্ষণ করে। এসময় তার চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে যুবকরা অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে যায়। 

ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রইচউদ্দিন জানান, ওই নারী চিকিৎসক র‌্যাবের কাছে ওই চক্রকে আটকের সহযোগিতা কামনা করেন। এরই প্রেক্ষিতে রবিবার তিনজনকে আটক করা হয়।

রাজবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিক কামাল বলেন, এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে নারী চিকিৎসক নিজেই বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার সাথে জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং/বিকাল ৫:৩৭