২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:৩২

গাইবান্ধায় পেট্রলবোমা নিক্ষেপকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগ

 

জাহিদ খন্দকার,গাইবান্ধা : ২০১৫ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি গাইবান্ধা সদর উপজেলার তুলসীঘাট এলাকায় চলন্ত বাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপকারী জামায়াত-বিএনপির সন্ত্রাসীদের শাস্তির দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গাইবান্ধায় মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগ। জেলা শহরের ডিবি রোডের আসাদুজ্জামান মার্কেটের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গাইবান্ধা সরকারি কলেজ শাখা।

জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আব্দুল লতিফ আকন্দ, গাইবান্ধা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আসিফ সরকার, সহ-সভাপতি সুজয় কুমার, আব্দুল মোন্নাফ মাসুম, জিয়াউর রহমান মুন্না, সাধারণ সম্পাদক মোসাদ্দেক হোসেন মামুন, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সুরুজ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম বিশাল, সোহানুর রহমান সোহান, ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক উপ-সম্পাদক রায়হান মিয়া ও জেলা ছাত্রলীগের সদস্য মুবিয়া হাসান নিয়াত প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ডাকে দেশব্যাপী অবরোধে সময় পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করা হয়েছিল। তারই অংশ হিসেবে গাইবান্ধার তুলসীঘাটে চলন্তবাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করা হয়। সেই ঘটনায় আটজন অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়। পরিবারের সদস্যদের হারিয়ে এখনো সেসব পরিবারগুলোতে হাহাকার চলছে। গাইবান্ধা জেলার যেসব জামায়াত ও বিএনপি নেতাকর্মীরা সেদিন চলন্ত বাসে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করেছিল আজকে তারা আজকে সবার সামনে দিয়ে চলাচল করছে। মানববন্ধনে পেট্রলবোমা হামলার ঘটনায় আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি বিএনপি-জামায়াতের অনির্দিষ্টকালের ডাকা অবরোধের সময় গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের সদর উপজেলার তুলশীঘাট গ্রামে চলন্ত বাসে পেট্রল বোমা হামলায় আটজন নিহত এবং ৩২জন দগ্ধ হন।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং/বিকাল ৪:৪৩