২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৪১

রাণীশংকৈল সংবাদ প্রতিনিধি শাওনের বিরুদ্ধে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা’র অভিযোগ এনে ইউএনও বরাবর স্মারক লিপি প্রদান

 

সুজন,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় ৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার দুপুরে পৌর মেয়র আলমগীর সরকারের নেতৃত্বে দৈনিক দিনকালের উপজেলা সংবাদ প্রতিনিধি খুরশেদ আলম শাওনের মিথ্যা বানোয়াট সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা চত্বরে রাণীশংকৈল পৌরবাসীর পক্ষে খুরশেদ আলম শাওনকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করে ৪৮জনের স্বাক্ষরিত একটি লিখিত স্মারকলিপি ইউএনও বরাবরে দাখিল করেন। প্রতিবাদ সভায় মেয়র আলমগীর বলেন জাইকার নবিদেপ প্রকল্পের কাজে কোন অনিয়ম হয় না। নিয়ম মত কাজ না হলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে বিল দেওয়া হয় না। ৬ কিঃমিঃ কাজের যে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করা হয়েছে তা ঢাকার প্রকৌশলীরা এসে খারাপ কাজের সত্যতা খুজে পাননি।

নিয়ম অনুযায়ী ইটের গুনগত মান ঠিক রয়েছে বলে জানান মেয়র। তিনি আরোও বলেন- দৈনিক দিনকালের প্রতিনিধি শাওন আমার কাছে ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকা চাঁদা দাবী করেছে, টাকা না দিতে চাইলে সে রাস্তার বিরুদ্ধে এমন ভুয়া, বানোয়াট মিথ্যা সংবাদ পত্রিকায় ছাপিয়েছে। এসময় আরো বক্তব্য রাখেন যুবলীগ সম্পাদক রমজান আলী, পৌর কাউন্সিলর মুকুল, নাজমা, মুক্তি রাণী, সাবেক কাউন্সিলর রফিউল, যুবলীগ নেতা শসীম, মেনন, আলী, স¤্রাট, শ্রমিক নেতা আব্দুল মান্নান প্রমূখ।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মোঃ নাহিদ হাসানের সাথে মুঠোফনে কথা বললে তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে জানান স্মারক লিপি গ্রহন করেছি, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দিনকালের উপজেলা প্রতিনিধি খুরশেদ আলম শাওন কে মেয়রের অভিযোগের ভিত্তিতে ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকা চাঁদা চাওয়ার বিষয়টি মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি ঠিকাদারের সাথে ভিডিও কলে কথা বলেছি। তবে মেয়রের কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন ।

উল্লেখ্য যে গত ২৮ জানুয়ারি দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ প্রত্রিকায় প্রকাশিত “ বদলী ঠিকাদার ও নিম্ন মানের ইট দিয়ে চলছে জাইকার কাজ” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর মেয়র আলমগীর মোবাইল ফোনে সাংবাদিক শাওনকে হুমকি প্রদান করেন। এ ব্যাপারে শাওন রাণীশংকৈল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে।

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/৫ই  ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং/রাত ১:১৫