২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৫৩

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে ১০ বছরের শিশুকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনার আসামী গ্রেফতার

 

হাসান মজুমদার বাবলু,নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে রোকসানা নামের ১০ বছরের এক শিশুকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনার একমাত্র আসামী সোহাগকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রবিবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ বন্দর উপজেলার নবীগঞ্জ টি হোসেন রোড এলাকায় নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। সোমবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: শরফুদ্দিন আহমেদ জানান, প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে পুলিশ প্রথমে সোহাগের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়।

পরে তাকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে সে রোকসানাকে অপহরণ করে নিজ বাসায় নিয়ে মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে ধর্ষণ ও নির্মমভাবে নির্যাতনের পর শ্বাসরোধ করে হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করে। পরে নিহত রোকসানার হাত পা বেঁধে বস্তায় ভরে একটি ব্যাটারীচালিত আটো রিকসায় করে সোনারগাঁয়ের কাইক্কারটেক চর এলাকায় নিয়ে ব্রীজের নীচে ফেলে দিয়ে আসার কথাও জিজ্ঞাসাবাদে জানায়। তিনি জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত সোহাগের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে। তারা বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে গত ২৩ জানুয়ারী বিকেলে সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার গোদনাইল আরামবাগ এলাকায় গোদনাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী রোকাসানাকে নিজ বাসা থেকে কৌশলে ডেকে নিয়ে যায় সোহাগ। পরদিন তার পরিবারের কাছে মোবাইলে ফোন করে মুক্তিপণ বাবদ ছয় হাজার টাকা দাবী করে। এ ঘটনায় রোকসানার বাবা আশরাফুল মিয়া সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন।

অপরহরণের তিনদিন পর ২৬ জানুয়ারী সকালে সোনারগাঁ থানা পুলিশ রোকসানার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে। চার ভাই-বোনের মধ্যে রোকসানা ছিল সবার ছোট।
সট: মো: শরফুদ্দিন আহমেদ—অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল)

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/২৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং/দুপুর ২:৫২