২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৩১

লোহাগড়ায় সরকারি ও মালিকানাধীন জমি দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

 

শরিফুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল : নড়াইলের লোহাগড়ায় সরকারি ও মালিকানাধীন জমির উপর গড়ে ওঠা রাস্তা অবৈধভাবে দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণসহ ভোগ দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে গ্রামবাসিরা। গতকাল রোববার(২৮ জানুয়ারি) দুপুরে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে গ্রামবাসি লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারি কমিশনার(ভূমি) বরাবর প্রতিকার চেয়ে স্বারকলিপি প্রদান করেন।

৯০ নং লক্ষীপাশা মৌজার সাবেক ৯৬৫ ও ৯৬৬ নং দাগের উত্তর পার্শ্বে ২ শতক জমির উপর ৩০ বছর পূর্বে রাস্তা নির্মাণ করে জমির মালিকসহ রাজুপুর গ্রামবাসী চলাচল করতো। ওই জমির ছিলেন আবুল হাসনাত স্বপন।ওই জমির বর্তমান হাল দাগ ৫০৬৪। বর্তমানে ওই দুই শতক জমি সরকারি রাস্তা হিসাবে রেকর্ডভূক্ত হয়েছে এবং ওই জমির আংশিকের উপর দিয়ে লোহাগড়া পৌরসভা ইটের সলিং রাস্তা নির্মাণ করেছে। ওই দুই শতক জমি সরকারি রেকর্ডভূক্ত হলেও রাস্তা পার্শ্ববর্তী ৯৫২ নং দাগের জমির মালিক লক্ষীপাশা গ্রামের মৃত আঃ রশিদ শেখের ছেলে শেখ মশিয়ার রহমান ওই দুই শতক জমির মধ্যকার প্রায় দেড় শতক জমি এবং সরকারি ১.২০ শতক জমি অবৈধভাবে দখল করে অবৈধ স্থাপনা (টয়লেট ও বারান্দা) নির্মাণ করে ভোগ দখল করে আছে।

গ্রামবাসিরা বিষয়টির প্রতিকার চেয়ে লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আবেদন করলে আবেদনের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে সরকারি সার্ভেয়ার ও সংশ্লিষ্ট ভূমি কর্মকর্তা গতবছর ১৫ অক্টোবর ৯০ নং লক্ষীপাশা মৌজার ৯৫১, ৯৫২, ৯৬৫ ও ৯৬৬ নং দাগের জমি মাপ-জরিপ করে শেখ মশিয়ারের অবৈধ স্থাপনার (টয়লেট ও বারান্দা) মধ্যে সরকারি ১.২০ শতক জমির উপস্থিতি পান।

পরবর্তীতে লোহাগড়ার সহকারি কমিশনার(ভূমি) এম,এম আরাফাত হোসেন নিজে লোহাগড়া থানা পুলিশ ও সংশ্লিষ্টদের নিয়ে গত বছর ২৫ নভেম্বর ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত তার জনবল দিয়ে অবৈধস্থাপনার কিছু অংশ অপসারণ করেন। পৌর কর্তপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে শেখ মশিয়ার এখনো রাস্তার জমি দখল করে আছে।

ভূমি দস্যু মশিয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে তিনি প্রশাসনের কাছে অবৈধস্থাপনা উচ্ছেদের দাবি জানান। ভূক্তভোগী শেখ ওলিয়ার রহমান, নূর ইসলাম, মোঃ তসলিম হোসেন, কাজী কামাল, কাজী শরিফুল ইসলামসহ অন্যরা অবিলম্বে মশিয়ারের অবৈধস্থাপনা উচ্ছেদ করে দখলকৃত রাস্তা মানুষের চলাচলের উপযোগি করবার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৮শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং/সন্ধ্যা ৬:১৬