১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:২৪

একটি শীত বস্ত্র তীব্র শীতে আগুনের পরশমনি

 

শামসুল ইসলাম সহিদ,মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : হাড় কাপানো শীতে একটু উষ্ণ বস্ত্র যেন আগুনের পরশমনি প্রানে ছোঁয়া।গত কয়েক দিনে সূর্যের দেখা নেই বললেই চলে। তীব্র শীতে হাত-পা ঠান্ডা হয়ে জমে আসছে।

শীত বস্ত্র না থাকায় এক রুমে গাদাগাদি অবস্থান নিয়ে তীব্রতা থেকে রক্ষা পাওয়ার প্রাণন্তকর চেষ্টা চালায় ওরা। এমনই অবস্থায় রোববার বিকেলে মির্জাপুর পৌরসভার পোষ্টকামুরী গ্রামে অবস্থিত আলহাজ ওয়াজ উদ্দিন হাফিজীয়া মাদরাসা ও এতিমাখানার শিশুদের মাঝে শীত বস্ত্র নিয়ে হাজির হন স্থানীয় এমপি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন। হাড় কাপানো শীতে কম্বলসহ এমপিকে দেখে এতিম শিক্ষার্থীরা যেন প্রাণ ফিরে পেল।

এতিমদের মাঝে কম্বল বিতরণের সময় এমপি একাব্বর হোসেনের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমন, মির্জাপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলম মিয়া, দুই নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্র স্যানাল, পৌর যুবলীগ সভাপতি ইয়াছিন হিরা মিয়া প্রমুখ।

কম্বল পেয়ে এতিমখানার ছাত্র মাকফেরুল, জিহাদ, রুহিউল ও আকিকুর জানায়, গত কয়েক দিনের শীতে শরীর হাত-পা যেন বাঁক হয়ে আসে। মনে হয় বরফ হয়ে জমে যাচ্ছি। শীত থেকে রক্ষা পেতে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে গাদাগাড়ি করে বসে থাকি। আজ এমপি সাহেব কম্বল দেয়ায় কষ্ট অনেকটা কমে আসবে।

এর আগে এমপি একাব্বর হোসেন আলহাজ শফি উদ্দিন মিঞা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পৌরসভার ১ ও ২নং ওয়ার্ডের দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে শীত বস্ত্র বিতরণ করেন।

 

 

কিউএনবি/সাজু/১৪ই জানুয়ারি, ২০১৮ ইং/রাত ৮:২১