১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১১:৪৩

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে বই উৎসবে জুতা পায়ে শহীদ মিনারে ওঠায় ক্ষোভ

 

মিজানুর রহমান মিন্টু,জয়পুরহাট প্রতিনিধি : জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলা শহরে অবস্থিত এফ, ইউ পাইলট হাইস্কুলে বিনা মূল্যে বই বিতরন উৎসবে যোগ দিতে এসে শহীদ মিনারের বেদীতে জুতো পায়ে ওঠায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধাসহ বিশিষ্ট জনেরা। সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের বিনা মূল্যে বই বিতরন উপলক্ষে ওই স্কুলের শহীদ মিনারে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও বই বিতরনকালে শহীদ মিনারের বেদীতে জুতা পায়ে ওঠে পরেন সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতাসহ স্কুলের শিক্ষক নেতৃবৃন্দ। ওই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সহকারী কমিশনার, ভূমি) তাহমিনা রহমান।

এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কমল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর, ভাইস চেয়ারম্যান এস.এম রাসেদুল আলম সবুজ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ.টি.এম জিল্লুর রহমান, জেলা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ স্বাধীন মাষ্টার, স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন প্রমুখ।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক অনেক অভিভাবক, শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীরা শহীদ মিনারে জুতা পায়ে ওঠায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, এতে করে শহীদ মিনারের পবিত্রতা নষ্ট হয়েছে। আর শহীদদের স্মৃতির প্রতি আয়োজকরা উদাসিনতা দেখিয়েছেন বলেও তারা মনে করছেন।

জয়পুরহাট ইউনিটের কমান্ডার আমজাদ হোসেন জানান, “বিষয়টি শুনেছি।” তিনি বলেন, পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে ভাষার মুক্তি ঘটানো সেই বীর শহীদদের স্মৃতি নিয়ে মাথা উঁচু করে দাড়ানো বাঙ্গালী জাতিসত্তার সব চেয়ে বড় আবেগের স্থান এই শহীদ মিনার।
সেখানে সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা, শিক্ষকদের মধ্যে কয়েকজন যদি শহীদ মিনারে জুতো পায়ে উঠে এর পবিত্রতা ক্ষুন করে থাকেন তাহলে নীতি বিবর্জিত কাজ হয়েছে। শহীদ মিনারের পবিত্রতা রক্ষায় ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ বলে মনে করেন জয়পুরহাট মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের কমান্ডার আমজাদ হোসেনসহ মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় সচেতন মহল ।

এ ব্যাপারে আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সহকারী কমিশনার, ভূমি) তাহমিনা রহমান জানান, তথ্য ও ছবি পাওয়া গেলে প্রশাসনিক ভাবে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১লা জানুয়ারি, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৫৮