২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩০

ইলিয়াস আলীর ছবি দেখে ‘আপ্লুত’ লুনা!

সিলেট মহানগর বিএনপির একটি কর্মী সভায় নিখোঁজ বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীর উপস্থিতি দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তার সহধর্মিনী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তাহসিনা রুশদীর লুনা। তবে বাস্তবে ইলিয়াস আলীর উপস্থিতি নয়, আসলে ইলিয়াস আলীকে ভালোবেসে তাকে অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়ার নেতাকর্মীদের দাবীতে সাটানো একটি ব্যানার দেখে খুশিতে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি।

শনিবার ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে তাহসিনা রুশদীর লুনা বলেন, এই অনুষ্ঠানে ইলিয়াস আলীও উপস্থিত আছেন। নেতাকর্মীরা যে এখনো ইলিয়াস আলীকে কতটুকু ভালোবাসে এটা তার প্রমাণ। ইলিয়াস আলীর প্রতি নেতাকর্মীর ভালোবাসাই তাকে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত করতে বাধ্য করেছে বলে জানান তিনি।

 

নিখোঁজ বিএনপি নেতার এই স্ত্রী বলেন, ইলিয়াস আলী ফিরবেন বলেই আমরা বিশ্বাস করি। এজন্য নেতাকর্মীদের সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান তিনি। তিনি মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন এবং সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমকে সুন্দর সফল আয়োজনের জন্য ধন্যবাদও জানান।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা তাহসীনা রুশদীর লুনা বলেন, ‘শেখ হাসিনাই বাংলাদেশের একমাত্র সমস্যা। এ থেকে জাতিকে মুক্ত করতে আন্দোলনের বিকল্প নেই। খালেদা জিয়াকে মাইনাস করে ২০১৪ সালের মত আর কোন নির্বাচন এ দেশে হতে দেয়া হবে না। এ ব্যাপারে সবাইকে প্রস্তুত থাকতে হবে।’

 

তাহসিনা রুশদীর লুনার বক্তব্যের সময় মুহুর্মহু স্লোগানে ভারী হয়ে ওঠে সভাস্থল। উপস্থিত নেতাকর্মীরা ইলিয়াস আলীকে ফিরে পেতে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে স্লোগান দিতে থাকেন।

উল্লেখ্য, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমের পরিচালনায় শনিবার দুপুরে সিলেট মহানগর বিএনপির উদ্যোগে কর্মীসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা তাহসীনা রুশদীর লুনা, এম. এ হক, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির সিলেট বিভাগীয় কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও মহানগর বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট হাদিয়া চৌধুরী মুন্নী ও সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ।