২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:০২

বগুড়ায় জেএমবি প্রধান বিদেশি পিস্তল সহ আটক

 

এম নজরুল ইসলাম,বগুড়া প্রতিনিধি : ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বোমা হামলা মামলার অন্যতম আসামি এবং নিষিদ্ধঘোষিত জেএমবির দক্ষিণাঞ্চলের প্রধান আবু সাঈদ ওরফে তালহা ওরফে শ্যামলকে (৩৫) বিদেশি পিস্তলসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বাড়ি কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালি উপজেলার চর চাঁদপুর গ্রামে।

শুক্রবার দিনগত রাত ১টার দিকে জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার ওমরপুর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এই অভিযানে সহায়তা করে পুলিশ হেডকোয়ার্টারের ইনটেলিজেন্স শাখা। এ সময় আবু সাঈদের কাছ থেকে একটি নাইন এমএম পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, ৮ রাউন্ড গুলি, একটি চাকু ও রেজিষ্ট্রেশনবিহীন মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) সনাতন চক্রবর্তী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নন্দীগ্রাম থেকে জেএমবির সুরা সদস্য ও মোস্ট ওয়ান্টেড আবু সাঈদকে গ্রেফতার করা হয়। সে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বোমা হামলা মামলার অন্যতম আসামি। ২০১৪ সালের ২ অক্টোবর বর্ধমান শহরের খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণে দু’জন নিহত হন। তারা হলেন- শাকিল গাজী ও করিম শেখ। ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ এই হামলার জন্য বাংলাদেশের জেএমবিকে দায়ী করেছে।

উল্লেখ্য, গত ৭ ডিসেম্বর জেএমবির উত্তরাঞ্চলের সামরিক প্রধান ও সুরা সদস্য বাবুল আক্তার ওরফে বাবুল মাস্টারসহ (৪৫) চারজনকে আগ্নেয়াস্ত্রসহ বগুড়া থেকে গ্রেফতার করেছিল জেলা ডিবি।

বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান বিপিএম তার কার্যালয়ে শনিবার দুপুরে প্রেস ব্রিফিং করে জানান, ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানে বিস্ফোরণের ঘটনায় বাংলাদেশের জেএমবি সদস্য শ্যামলই মূল হোতা বলে দাবি করেন ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ। সে সময় শ্যামলকে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য দশ লক্ষ রুপি পুরস্কার ঘোষনা করা হয়।

কিউএনবি/সাজু/৩০শে ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/রাত ১০:৪৪