২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:০০

বগুড়ায় চলছে ইজতেমা, ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প ব্যবস্থা

 

এম নজরুল ইসলাম,বগুড়া প্রতিনিধি : ৩ দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা বগুড়া শহরতলির ঝোপগাড়ি এলাকায় মারকাজ মসজিদ চত্বরে শুরু হয়েছে।বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ শেষে আম বয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার কার্যক্রম শুরু হয়। ঢাকার কাকরাইল মসজিদের মুরুব্বি মাওলানা আবদুল মতিন বয়ান করেন। পরে কাকরাইল মসজিদের মুরুব্বি মাওলানা রবিউল হক আলোচনা করেন।

শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) ইজতেমার জুমআ’র নামাজে লাখ লাখ মুসল্লি অংশ নেন। ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের পাশে ঝোপগাড়ি এলাকায় মুসল্লিদের জন্য প্রায় ৯ একর জায়গাজুড়ে ইজতেমার আয়োজন করা হয়। এ ইজতেমায় মালয়েশিয়া, মরক্কো ও সৌদি আরব, চীন, ইন্দোনেশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ থেকে মেহমান এসেছেন।

২য় বারের মতো বগুড়া জেলায় ইজতেমা শুরু হয়েছে। ইজতেমা সফল করতে গত ১ মাস ধরে বগুড়া শহরের ঝোপগাড়ি মহাসড়কের পাশে মারকাজ মসজিদ চত্বরে কাজ করেছেন সেচ্ছাসেবকরা। ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের পৃথক পৃথক অজুখানা, গোসল খানা, বাথরুম, রান্নার জায়গা, ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প, ওষুধ, অ্যাম্বুলেন্স ব্যবস্থা রয়েছে। ইজতেমাকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহীনির সদস্যসহ সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে জানিয়েছেন বগুড়ার পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান বিপিএম (অতিরিক্ত ডিআইজি)।

শনিবার (৩০ (ডিসেম্বর) আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে ইজতেমা।এদিকে, জেলা ইজতেমা উপলক্ষ্যে হোমিওপ্যাথিক ফ্র্রি চিকিৎসা ক্যাম্প উদ্বোধন করা হয়েছে। ইজতেমার শেষ দিন শনিবার বিকেল পর্যন্ত এই ক্যাম্পে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ প্রদান করা হবে।

বগুড়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল এসোসিয়েশন বগুড়ার আয়োজনে ক্যাম্পে সেবা দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় ইজতেমা মাঠ সংলগ্ন (দক্ষিন পার্শ্বে রাস্তায়) ফিতা কেটে ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বগুড়া জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনি। হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা: দেলওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বগুড়া প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু ও কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য ডা: আব্দুল খালেক।

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/৩০শে ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/ দুপুর ২:৪৯