১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:০৩

রেকর্ড গড়ে ৯৮ বছর বয়সে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন!

রাজকুমার ভাইশ। জীবনের ৯৮টি বসন্ত পেরিয়ে এসেছেন ভারতের পাটনার এই বৃদ্ধ। বর্তমানে হুইলচেয়ারের সাহায্যে চলতে হয় তাকে। কিন্তু স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে সুদৃঢ় ছিলেন রাজকুমার। তাই ৯৮ বছর বয়সে এসেও মাস্টার্স ডিগ্রিটা পেয়ে গেলেন তিনি।

তিনি ভারতের পাটনার নালন্দা ওপেন ইউনিভার্সিটি থেকে মাস্টার্স শেষ করেন তিনি। ২০১৫ সালের শিক্ষাবর্ষে ইকোনমিকস-এ মাস্টার্স শুরু করেন ভাইশ। সম্প্রতি কনভোকেশনে তার হাতে এই প্রতীক্ষিত সার্টিফিকেট তুলে দেন মেঘালয়ার গভর্নর গঙ্গা প্রসাদ।

 

উচ্ছ্বাসিত কণ্ঠে তিনি জানান, আমি সত্যিই আনন্দিত। এর জন্যে আমি এই বয়সে অনেক পরিশ্রম করেছি। আমার মাস্টার্স ডিগ্রিটা সম্পন্ন করার স্বপ্ন অনেকদিন ধরেই দেখেছি। তরুণদের কেবল ক্যারিয়ারের দিকে মনোযোগ না দিয়ে লেখাপড়াতেও মন দেওয়া উচিত বলে পরামর্শ দেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এসপি সিনহা জানান, এ বছর বিভিন্ন বিষয়ে ২২ হাজার ১০০ জন শিক্ষার্থী ডিগ্রি পেয়েছেন। এদের মধ্যে ভাইশ প্রথম ২৭৮০ জনের মধ্যে স্থান করে নিয়েছেন। নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যেও অনেকে সৌভাগ্যের বিষয় যে জনাব ভাইশের মতো একজন মানুষ এই বয়সে এখানে মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর ছিলেন। তিনি আমাদের কাছে এক বিস্ময় হয়ে থাকবেন। এখান থেকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট অর্জনের ক্ষেত্রে তিনিই বয়স্কতম ব্যক্তি। এটা একটা রেকর্ড।

 

ভাইশের ছেলে পাটনার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব টেকনলজি’র অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর। বাবার কনভোকেশনে এসেছিলেন। বললেন, আমরা কৃতজ্ঞ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি। আমরা অনেক খুশি। আমার বাবা সিঁড়ি বেয়ে উঠতে পারেন না। তাকে হুইলচেয়ার দিয়েছিল চিকিৎসক। কিন্তু তিনি ওয়াকার নিয়ে হাঁটেন। তার মধ্যে একাগ্রতা আর সাহস রয়েছে। এই ওয়াকার দিয়ে মঞ্চে উঠেই ডিগ্রি গ্রহণ করেন তিনি।

মেঘালয়ার গভর্নর ভাইশকে বলেছেন, আপনি আমাদের সবার অনুপ্রেরণার উৎস হয়েই থাকবেন।