২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ২:২৬

পিরোজপুরের রাজনীতিতে নতুন মেরুকরন : সাংসদ রস্তুম আলী ফরাজী জাতীয় পার্টিতে

 

মো: মামুন হোসেন, পিরোজপুর প্রতিনিধি : ছাত্র জীবনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এরপর জাতীয় পার্টি, ইসলামী শাষনতন্ত্র আন্দোলন এরপর বিএনপি হয়ে আবারও জাতীয় পার্টিতে ফিরলেন পিরোজপুর-৩ আসনের স্বতন্ত্র এমপি ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী।

২৩শে ডিসেম্বর শনিবার বেলা ১১টায় এক ঝমকালো পরিবেশে বনানীর জাপা কার্যালয়ে জাতীযয় পার্টির (জাপা) চেয়াররম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের হাতে ফুল দিয়ে তার দলে যোগ দেন তিনবারের নির্বাচিত এ সাংসদ। এ সময় জাতীয় পার্টির সকল স্থরের নেতা ও কর্মি উপস্থিত ছিলেন।১৯৯৬ সালে পিরোজপুর-৩ আসন থেকে জাপার মনোনয়ন প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন।ডা: রুস্তম আলী ফরাজীর যোগদানে জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত মহিলা আসন সহ সংসদ সদস্যর সংখ্যা দাড়াালো ৪১-এ।

এদিকে জাতীয় পার্টিতে যোগদান নিয়ে তার নির্বাচনি এলাকা মঠবাড়িয়ায় বইছে পক্ষে বিপক্ষে আলোচনা।অনেকের মতে ঘরের ছেলে ঘরে ফিরছেন । আবার দল বদল তার পুরানো অভ্যাস বলে অনেকেই মত প্রকাশ করেন।তবে স্থানীয় জাতীয় পার্টির সকলেই এ নেতাকে কাছে পাচ্ছেন বলে অত্যান্ত খুশি।

উল্লেখ্য,ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী ১৯৬৬ সালে পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগের মঠবাড়িয়া উপজেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছিলেন। ১৯৭৮ সালে স্যার সলিমুল্লাাহ মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন।

এরশাদের শেষ সময় ১৯৯০ এ ডা: ফরাজী একবার উপজেলা চেয়ারম্যান,১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারীর নির্বাচনে ইসলামী শাষনতন্ত্র আন্দোলন থেকে সংসদ নির্বাচন করে হেরে যান এরপর ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগের বর্ষিয়ান নেতা জাতীয় নেতা মহিউদ্দিন আহম্মেদ কে হারিয়ে জাতীয় পার্টি থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে তিনি জাতীয় পার্টি ছেড়ে যোগ দেন বিএনপিতে। ২০০১ সালে তিনি বিএনপি থেকে নির্বাচন করে পিরোজপুর-৩ এ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই স্থানীয় বিএনপির সঙ্গে দ্বন্দ্ব ও বিরোধের জের ধরে ফরাজী এক পর্যায়ে বিএনপিতে কোণঠাসা হয়ে পড়েন। তিনি সংস্কারপন্থী নেতা হিসেবেও বিতর্কিত হলে বিএনপি থেকে মনোনয়ন বঞ্চিত হন।

২০০৯ সালের বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেন ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী। তখন আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন। সে সময় থেকে আর তিনি বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় হননি বরং ২০১৪ সালের নির্বাচনে পুনরায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. আনোয়ার হোসেনকে পরাজিত করেন।

তবে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দীর্ঘদিন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হিসেবে থাকা সাংসদ ফরাজী অবশেষে এইচ এম এরশাদের জাতীয় পার্টিতে ফিরলেন।

কিউএনবি/সাজু/২৩শে ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/সন্ধ্যা ৭:০৯