২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:১৩

ঝালকাঠিতে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ আহত ১০, আটক ১

 

মোঃ আমিনুল ইসলাম,ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠিতে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। এতে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান খান বাপ্পিসহ অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় পুলিশ বিএনপির এক নেতাকে আটক করে। লাঠিচার্জের কারণে কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচি পন্ড হয়ে যায়।

আজ সোমবার সকাল ১১টায় শহরের ফায়ার সার্ভিস সড়কে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেয় জেলা বিএনপি।

বিএনপি নেতারা জানান, সকাল থেকেই ফায়ার সার্ভিস সড়কে অবস্থিত জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে পুলিশ বেরিকেড দিয়ে রাখে। নেতাকর্মীদের কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সকাল ১১টার দিকে জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ কার্যালয়ের সামনে আসলে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এতে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান খান বাপ্পি, যুবদল নেতা রবিউল হোসেন তুহিন, ছাত্রদল নেতা জাহিদ হোসেন, ইয়াসিন আরাফাত মিঠু, বারেক হোসেন, মো. মঈন, শ্রমিক দল নেতা ফারুক হোসেন, মো. মামুনসহ অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হন।

পুলিশ দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শহরের ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেনকে আটক করে। পন্ড হয়ে যায় কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি। পুলিশ চলে গেলে দলীয় কার্যালয়ের সামনে হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সভাপতি মোস্তফা কামাল মন্টু, সহসভাপতি মিঞা আহমেদ কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর।

ঝালকাঠি থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, ‘সমাবেশের নামে বিএনপি নেতাকর্মীরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন। তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে একজনকে আটক করা হয়েছে। ‘

কিউএনবি/সাজু/১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/বিকাল ৫:৪৫