১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৪১

প্রত্যেকটা ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেছে : আইজিপি

 

 

লুৎফুন্নাহার রুমা, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : পুলিশের আইজিপি বলেন, পুলিশের গৌরব উজ্জ্বল ভুমিকার কথা বলতে গিয়ে বলেন, বিগত কয়েক বছর বাংলাদেশ পুলিশ প্রত্যেকটা ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেছে, প্রত্যেকটা ক্রাইসিস জনগনকে সাথে নিয়ে মোকাবেলা করেছে।

সর্বশেষ যে জঙ্গী তৎপরতা সফল ভাবে মোকাবেলা করেছে। সর্বশেষ জঙ্গী তৎপরতায় অভ্যন্তরীন নিরাপত্তা জাতীয় নিরাপত্তা জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করার যে পায়তারা করা হচ্ছিল নিরীহ লোকজনকে হত্যা করা হচ্ছে আমরা সেটাও এই জনগনকে সাথে নিয়েই সফলভাবে মোকাবেলা করেছি।

ইতোমধ্যে জঙ্গীদের দুর্বল করার দাবী করে পুলিশ প্রধান বলেন পুলিশের জঙ্গি বিরোধি এই তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। ময়মনসিংহের মানুষের সঙ্গে আত্মিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরে আইজিপি বলেন, এ ময়মনসিংহে চাকরি করেছি। এ পুলিশ লাইন্সে ক্রীড়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।

গত কয়েক বছরে ৩ বার ময়মনসিংহে এসেছি। এ ময়মনসিংহের মানুষের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক। বার্ষিক পুলিশ সমাবেশকে ট্র্যাডিশনাল হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা পরিশ্রম করে পুলিশ সদস্যরা জননিরাপত্তা নিশ্চিত করে। তাদেরও খেলাধুলার প্রয়োজন আছে।

এ ধরণের অনুষ্ঠানে পরস্পরের সঙ্গে একটি ভাতৃপ্রতিম সম্পর্ক গড়ে উঠে। এমন মিলন মেলায় তাদের বিনোদনেরও সুযোগ সৃষ্টি হয়। আরো বলেন, পুলিশের কন্ট্রোলরুমে ব্যবহত অত্যাধুনিক প্রযুক্তি স্থাপিত সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক কন্ট্রোলরুম ও মিডিয়া সেন্টারের স্থাপনের ফলে দ্রুততম সময়ে অপরাধ ও অপরাধী সনাক্তকরন এবং কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহন এখন হাতের মুঠোয় এসেছে।

আজ বিকালে জেলা পুলিশের বার্ষিক সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ’১৭ বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে যোগ দিয়ে একে এম শহিদুল হক বিপিএম,পিপিএম এসব কথা বলেন।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,পুনাকের সভানেত্রী মিসেস শামসুন্নাহার রহমান,ময়মনসিংহ রেঞ্জর ডি-আইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেলা পুলিশ সুপার।

 

 

 

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/রাত ১২:০৯