১২ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৪৫

গোপালগঞ্জে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতি

 

এম শিমুল খান,গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরের চকশিন নয়াকান্দী গ্রামে ৫ বিঘা পুকুরে কীটনাশক (গ্যাস ট্যাবলেট) প্রয়োগে বিভিন্ন জাতের মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার রাতের কোন এ সময়ে দুষ্কৃতিকারীরা কীটনাশক প্রয়োগ করে এ ঘটনা ঘটায়। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন মাছ চাষী লক্ষ্যি কান্তি বাড়ৈ। এ ঘটনায় পুকুর মালিক মেরী বৈড়াগী বাদি হয়ে, মনোতোষ ব্যানার্যী,সবুজ বালা, শুশিল বাড়ই, অমিও বিশ্বাস, মার্গারেট বিশ্বাস, রিগান বিশ্বাস, শাকরিয় বৈরাগী, ননী গোলদারকে আসামী করে মুকসুদপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

এ ব্যাপারে পুকুরের মালিক লক্ষি কান্তি বাড়ৈ জানান, গভীর রাতে আমি আমার পুকুর পাড়ে লাইটের আলো দেখতে পাই। আমি বাইরে বের হয়ে আসলে সে চলে যায়। চারদিক অন্ধকার থাকায় আমি তাকে চিনতে পারি নাই । আমি কিছু বুঝতে না পেরে ঘুমাতে যাই । সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি পুকুরের মাছ মরে ভেসে উঠতে দেখে স্থানীয়দের খবর দেই এবং তাদের সহযোগিতা নিয়ে মরা মাছ গুলো পুকুর থেকে তুলে ফেলি।

ক্ষতিগ্রস্থ মাছ চাষী মেরী বৈরাগী জানান, আমার পুকুরটিতে তেলাপিয়া, টেংরা, রুই, কাতলা, সিলভার কার্পসহ বিভিন্ন জাতের প্রায় ৯ প্রকারের মাছ চাষ শুর করেছিলাম। কেউ প্রতিহিংসা বসত আমার ক্ষতিসাধনের জন্য আমার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেছে। এতে আমার প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এ বিষয়ে উক্ত মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মুকসুদপুর থানার এস আই লাভলু মাতব্বর বলেন, মুকসুদপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তদন্ত চলছে তদন্ত পূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনাগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১০ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং/দুপুর ২:৫৮