১৩ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:৩১

লোহাগড়ার কোটাকোল ইউপিতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

শরিফুল ইসলাম,নড়াইলঃ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কোটাকোল ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের ছোঁড়া গুলিতে ও কোপে ১জন নিহত, ৪-৫জন গুলিবিদ্ধ এবং চেয়ারম্যান প্রার্থী(আনারস) খান জাহাঙ্গীর আলম সহ অন্তত ২০জন আহত হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২জুন) দুুপুর ১২টার দিকে তেলকাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা লোহাগড়া,কালিয়াসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিতে ওই এলাকায় পুলিশ,র‌্যাব, বি,জি,বি মোতায়েন করা হয়েছে।

এলাকাবাসি ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী(আনারস) খান জাহাঙ্গীর আলম ও তার সমর্থকরা তেলকাড়া গ্রামে ভোট চাইতে গেলে আওয়ামীলীগের প্রার্থী(নৌকা) বি,এম হিমায়েত হোসেন হিমু ও তার সমর্থকরা প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম কে গ্রামে যেয়ে ভোট চাইতে বাধা প্রদান করে।

দুপক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা চেয়ারম্যান প্রার্থী খান জাহাঙ্গীর আলম কে মারপিট করে মাথা ফাঁটিয়ে দেয়। এসময় বোমা বর্ষণ, গোলাগুলির ঘটনাঘটে।

এসময় পার্শ্ববর্তী দিঘলিয়া ইউপির দিঘলিয়া পূর্বপাড় গ্রামের সিদ্দিক মুন্সীর ছেলে নিশান মুন্সী (২০) গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে দ্রুত কালিয়া হাসপাতালে নেবার পথে তার মৃত্যু হয়। গুলিবিদ্ধসহ আহতদের মধ্যে রয়েছে সুমন, মামুন, আজমল, শামীম মোল্যা, ছমান সিকদার, শাহ আলম, তোফায়েল শেখ।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, এ ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আইন-শৃংখলা বাহিনী সতর্ক রয়েছে। পরিবেশ শান্ত আছে। উল্লেখ্য, ৪জুন এ ইউপিতে ভোট গ্রহণ।

 

 

কুইকনিউজবিডি.কম/টিআর/০২.০৬.২০১৬/১৯ঃ০৪