১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩১

প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চাইলেন অপু বিশ্বাস

 

স্বামী শাকিব খানের তালাকের নোটিশ পাঠানোর ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তা চাইলেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। বুধবার একটি জাতীয় দৈনিকের সাথে আলাপকালে শাকিবের তালাককাণ্ডে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সহনশীল ও সুবিবেচনাপ্রসূত মনের মানুষ। তাঁর সহমর্মিতা অতুলনীয়। শাকিবের একরোখা সিদ্ধান্তে আমার জীবন এখন বিপন্ন। প্রধানমন্ত্রীর সদয় হস্তক্ষেপই এই দুর্বিষহ অবস্থা থেকে আমাকে মুক্ত করতে পারে।’

এছাড়া মানবাধিকার ও নারী সংগঠনগুলোকেও পাশে চান অপু। বলেন, ‘সেলিব্রেটি হলেও আমার সামাজিক মর্যাদা আছে। ডিভোর্সের মতো একটি ন্যক্কারজনক সিদ্ধান্ত কখনো মেনে নেয়া যায় না। সংসারে ঝগড়া, ঝামেলা থাকাটা স্বাভাবিক। একই ধর্মের হলে শাকিবের সিদ্ধান্ত মেনে নিতাম। সে আমাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেছে। কাজেই, তার এই অমানবিক সিদ্ধান্ত কোনোভাবেই মেনে নেব না।’

হতাশা ব্যক্ত করে নায়িকা বলেন, ‘নিজের ধর্ম ত্যাগ করে শাকিবকে বিয়ে করেছি। এখন সে আমাকে তালাক দিতে চাচ্ছে। এখন আমি কোথায় গিয়ে দাড়াব? আমার সম্প্রদায় তো এখন আর আমাকে স্বাভাবিকভাবে মেনে নেবে না।’

উল্লেখ্য, একাধিক অভিযোগ এনে গত ২২ নভেম্বর আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। প্রায় ১২ দিন পর গত সোমবার বিকালে সেটা প্রকাশ্যে আসে। নোটিশ পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পরে এই তালাক কার্যকর হবে।

 

কিউএনবি /রিয়াদ/৬ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং /রাত ৯:১৪