ব্রেকিং নিউজ
২১শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৬ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:০৯

দাগনভূঞায় ইউপি প্রার্থীর স্ত্রী ও মেয়েকে নির্যাতন

নিউজ ডেস্কঃ ফেনী জেলার দাগনভূঞা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ,বাড়িঘরে হামলা ও এক ইউপি প্রার্থীর স্ত্রী ও মেয়েকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার ২৮ মে  দুপুর দেড়টার দিকে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলার এয়াকুবপুর ইউনিয়নের দেবপুরগ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

এয়াকুবপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ফজলুল হক চৌধুরীর বাড়িতে হামলা করে অপর ইউপি সদস্য প্রার্থী সাহাব উদ্দিনের সমর্থকরা। এসময় ফজলুল হকের স্ত্রী ছকিনা আক্তার ও নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়ে ফাহমিদাকে নির্যাতন করে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা। এঘটনায় আহত হয়েছেন, মোতালেব মিঞা, আবু সাইদ, গিয়াস উদ্দিনের বড় মেয়ে পিংকি ও তার বোন কুলসুম আক্তার।

ফজলুল হক চৌধুরীর জানান, সাহাব উদ্দিনের ৬০-৭০ জন কর্মী দুপুর দেড়টার দিকে অস্ত্র-সশস্ত্র নিয়ে আমার বাড়ি ঘরে হামলা করে। এসময় ঘরে ঢুকে আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়ে ও আমার স্ত্রীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। পরে পুলিশ-বিজিবি এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে সরেজমিনে বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, গজারিয়া কেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে এক জনকে আটক করা হয়েছে। লক্ষরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোটের সময় ১০টি ব্যালট বাতিল করা হয়েছে। ওই কেন্দ্রের পাশ থেকে তিনটি তাজা ককটেল উদ্ধার করেছে র‌্যাব। ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যারয় কেন্দ্রে জাল ভোটের সময় তিনজনকে ৫ হাজার টাকা করে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

কুইকনিউজবিডি.কম/টিআর/২৮.০৫.২০১৬/২১:৩৪