১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:৫৪

লক্ষ্মীপুরে শিশুশ্রমিককে গাছে বেঁধে নির্যাতন

 

লক্ষ্মীপুরে সোহেল নামে ১০ বছরের এক শিশুশ্রমিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে লাঠি ও ঝাড়– দিয়ে পিটিয়ে অমানবিক নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গরুকে মারধরের অভিযোগে স্থানীয় প্রভাবশালী জবিউল্যা পাটওয়ারী ও কালু পাটওয়ারীর বিরুদ্ধে শিশু নির্যাতনের এ অভিযোগ উঠেছে।

শিশু নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে সমালোচনার ঝড় উঠে।

মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলার মান্দারীতে এ ঘটনা ঘটলেও এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

নির্যাতনের শিকার সোহেল চন্দ্রগঞ্জ থানার কুশাখালী ইউনিয়নের হাজীগঞ্জ গ্রামের শহিদুল হোসেনের ছেলে ও মান্দারী বাজারের বাবুলের চায়ের দোকানের শ্রমিক।

নির্যাতনের শিকার শিশু সোহেল ও স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে দোকান মালিক বাবুলের বাড়ি থেকে দোকানের উদ্দেশ্যে আসার সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে বাগানেই মলত্যাগ করে। এসময় পাশের আমির উদ্দিন পাটোয়ারী বাড়ির জবিউল্যা পাটওয়ারী ও কালু পাটওয়ারী সোহেলকে ধরে নিয়ে যায়। তাদের গরুকে মারধর করার অভিযোগ তুলে শিশু সোহেলকে লাঠি ও ঝাড়– দিয়ে বেদম মারধর করে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখেন তারা।

পরে খবর পেয়ে সোহেলের দোকান মালিক মো. বাবুল মান্দারী বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সোহেলকে ছেড়ে দিতে বলেন। এসময় তারা বাবুলের কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে বলে অভিযোগ করেন বাবুল।

পরে বিকাল ৪টায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় শিশুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহিম জানান, শিশু সোহেলকে গাছের সাথে বেঁধে মারধরের অভিযোগ শুনে তাকে উদ্ধার করা হয়। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

কিউএনবি /রিয়াদ/১৫ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং/দুপুর ২:৫৭