১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:১০

‘হামলা করে ফলাফল ছিনিয়ে নেয়ার মানেই হচ্ছে সরকার পতনকে তরান্বিত করা’

নাসির উদ্দিন বাদল, নোয়াখালী থেকে : কেন্দ্রীয় বিএনপির মুখপাত্র মো. শাহজাহান জানান, ভেঙ্গে ভেঙ্গে স্থানীয় সরকার নির্বাচন দিয়ে ভিন্ন জেলা থেকে পুলিশ ও মাস্তান এনে ভোটারদের ওপর হামলা করে ফলাফল ছিনিয়ে নেয়ার মানেই হচ্ছে সরকার পতনকে তরান্বিত করা। দেশে-বিদেশে এ নির্বাচনের কোন গ্রহণযোগ্যতা নেই। দখল ভালো হবে না। আবার বেদখলও হতে হবে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিএনপির সাবেক কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনের সমন্বয়কারী আলহাজ্ব মো. শাহজাহান এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সারা দেশে জলদস্যু, বনদস্যু ভাড়া করে এনে শহর ও গ্রামে আবাসিক হোটেল ও বাড়ী ঘরে রেখে নির্বাচনী ফলাফল ছিনিয়ে নেয়ার যে অপচেষ্টা শাসক দল চালাচ্ছে এর পরিণাম ভয়াবহ হবে। স্থানীয় সরকার নির্বাচনে এত বেশী সহিংসতা ঘটেছে তা অতীতের কোন সরকারের আমলে হয়নি।

মাইজদী বাজারের ভুলুয়া কলোনীতে বিএনপি প্রার্থীর উঠান বৈঠকে পুলিশের সামনে সরকার দলের গুন্ডাপান্ডারা হামলা, বোমা ও গুলি চালানো এবং প্রতিকার না পাওয়া বৃথা যাবে না।

নির্বাচন কমিশনকে মেরুদন্ডহীন বলে তিনি বলেন , ২৫ মের নির্বাচনে ট্যাংক লাগবে। জনপ্রতিনিধির ইচ্ছার ওপর মেয়র ও ইউনিয়ন নির্বাচনে ফলাফল ছিনিয়ে নেয়া হচ্ছে। রক্তের হোলি খেলা, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, দুর্নীতি, বাড়ী ও ঘর দখল আর এ তামাশা বেশিদিন চলতে দেয়া যায় না।

এ সময় নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব হারুনুর রশিদ আজাদ তার কর্মীদের ওপর হুমকি ধমকি, হামলা থেকে বিরত থাকতে সরকার দলের নেতাকর্মীদের হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। বক্তৃতা রাখেন জেলা যুবদলের সভাপতি মাহবুব আলমগীর আলো, বিএনপি নেতা জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট আবদুর রহমান, সাবেক সেক্রেটারী এডভোকেট শাহাদাত হোসেন ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরুল আমিন খান প্রমুখ।

কুইকনিউজবিডি.কম/এসবি/২৪.০৫.২০১৬/১৯:০৪