১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:৩৪

উদ্বোধনের আগেই হুমকিতে ২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ত্রিমোহনী সেতু

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ কোন প্রকার নিওম নীতি না মেনেই নির্মানাধীন সেতুর গার্ডারের পাশ থেকে বালু উত্তলন করে সংযোগ সড়কের কাজ করা হচ্ছে । এতে হুমকিতে পরেছে ২৮ কোট টাকা ব্যায়ে নির্মিত ত্রিমোহনী সেতু এলাকাবাসি বালু উত্তোলনে একাধিকরার বাধা দিয়েও রুখতে পারে নি ।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ( এলজিইডি) এর আওতায় সাঘাটা-গোবিন্দগঞ্জ সড়কের বাঙ্গালী নদীর উপর ৩৬০ মিটার দৈর্ঘ প্রায় সাড়ে ২৮ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত ত্রিমোহনী সেতুর কাজ শুরু হয় ২০১৩ সালের শেষ দিকে । ঢাকা জেলার দোহারের ঠিকাদারি প্রতিষ্টান মেসার্স সুরমা এন্টার প্রাইজ কাজটি হাতে নেন । এ বছরে মধ্য ভাগে সেতু নির্মান কাজ শেষ । চলছে সংযোগ সড়ক নির্মান । সাঘাটা-ফুলছড়ি উপজেলার মানুষরা শতবছরের আশা নিয়ে যখন তাকিয়ে আছে সেতুটির উদ্বোধনের অপেক্ষায় । ঠিক সেই সময় সেতুর গার্ডারের পাশ থেকেই বালু উত্তলন করে সেতুর সংযোগ সড়কের কাজ করছে সংস্লিষ্ট কাজের ঠিকাদার। এতে হুমকিতে পরেছে সদ্য নির্মিত এই সেতুটি । গার্ডার ডেবে যাওয়ার আসংখ্যা করছেন এলাকাবাসি । এই সেতুটি পেয়ে শত কষ্ট দুর হয়েছে তবে উদ্বোধনের আগেই সেতুর পশ্চিম পার্শের সংযোগ সড়কে ধস নেমেছে তার পরেও এভাবে ব্রিজের পাশ থেকে বালু তোলায় এলাকাবাসি ক্ষুব্ধ । একাধিকবার বাধা দেয়ার পরেও বালু তোলা ঠেকাতে পারেননি বলে তারা অভিযোগ করেছেন । অবেধ বালু উত্তলন বন্ধ করার জোর দাবী সাঘাটা গোবিন্ধগঞ্জ উপজেলার লাখ লাখ মানুষের ।

এ ব্যাপেরে সংস্লিষ্ট কাজের ঠিকাদার ও প্রজেক্ট ম্যানেজারের সাথে কথা বলতে চাইলে কথা বলেন নি । তবে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল জানান সেতু নির্মানের সরকারি আইন না মেনে বালু উত্তোলন করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানালেন গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক ।

 

 

কিউএনবি/খায়রুজ্জামান/ ২৯শে অক্টোবর,২০১৭ ইং/ রাত ৯:১২