১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:৫০

সিরাজগঞ্জ-৬, শাজাদপুর আসনে বিএনপির মূল প্রার্থী নিয়ে আলোচনায় সরগম এলাকা

 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ-৬ শাহজাদপুর আসনে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী কার্যক্রম ব্যাপক ভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীদের মধ্যে ব্যপক জনসংযোগ ও প্র চারণা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। হাট বাজার , চায়ের দোকানে আলোচনা হচ্ছে প্রচুর। যেহেতু এই আসনে বর্তমান এমপি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের হাসিবুর রহমান স্বপন, সে কারণে নির্বাচনের ইচ্ছা আওয়ামীলীগের অনেকের থাকলেও জনগণের মাঝে প্রার্থিতার বিষয়ে আলোচনা কম হচ্ছে। বিএনপির প্রার্থী অথবা ২০ দলের প্রার্থী হয়ে ধানেরশীষ প্রতিক নিয়ে কে আসবেন শাহজাদপুরে, এই নিয়েই ভোটারদের মাঝে আলোচনার শেষ নেই। মূল প্রার্থী নিয়ে আলোচনায় সরগম এলাকা ।

সিরাজগঞ্জ-৬, শাহজাদপুর আসনে বিএনপির বেশ কয়েক জন প্রার্থী থাকলেও উপজেলা বিএনপির সভাপতি হোসাইন শহিদ মাহমুদ গ্যাদনের জনসংযোগ, প্রচারণা ভিন্ন ভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে। প্রায়ই তিনি এলাকায় সফর করছেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন সহ প্রার্থী হিসাবে জনসংযোগকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বেশি। অন্য প্রার্থীরা পোস্টার, বিলবোর্ড দিয়ে এলাকা ছেয়ে ফেললেও গ্যাদন মাহমুদ কাজ করছেন সাংগঠনিক রীতিনীতির মধ্যেই।


অন্য প্রার্থীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল। এই দলের প্রার্থী যে কেউ হতে পারে,  দলীয় হাই কমান্ডের কাছে মনোনয়ন চাইতে পারে। আমি ধানেরশীষ প্রতীক কে জয়লাভ করার জন্যে কাজ করে যাচ্ছি, ১৭ বছর যাবৎ শাহজাদপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি। আমার সাফল্য এটাই, শাহজাদপুরে বিএনপির শক্ত অবস্থান করতে পেরেছি বলেই দলের অনেক নেতা কর্মী প্রার্থী হতে চাচ্ছে। আমি তাদের সকলকে স্বাগত জানাই, ধানের শীষ প্রতীক কে জয়লাভ করার জন্যে কাজ করুক।


বাস্তবিক অর্থে চিত্রটা একটু ভিন্ন। এবার শাহজাদপুরের অনেক বিএনপির নেতা কর্মী চাচ্ছেন হোসাইন শহিদ মাহমুদ গ্যাদন প্রার্থী হোক, জয়লাভ করুক এবং দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক নেতৃত্ব ও ঐতিহ্যের মূল্যায়ন হোক।
হোসাইন শহিদ মাহমুদ গ্যাদন একটি ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবার থেকে রাজনীতিতে এসেছেন। তাঁর বাবা মরহুম আব্দুর রশিদ মাহমুদ এই আসনের এমপি ছিলেন একটানা ২৬ বছর । ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই ছাত্র মাত্র ২৪ বছর বয়সেই ১৯৭৯ সালে স্বতন্ত্র এমপি প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করে ব্যাপক প্রতিদ্বন্দ্বিতার সৃস্টি করেছিলেন।


পরবর্তীতে ১৯৯০ সালে বর্তমান এমপি হাসিবুর রহমান স্বপন কে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এর পর থেকেই বিএনপির নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। নিজে এমপি না হলেও দলের অনেক নেতাই বিএনপি থেকে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন , তার সাংগঠনিক কর্মকান্ডের মধ্যেই। এবারে তিনি আগামী নির্বাচনে নিজে প্রার্থী হয়ে কাজ করতে চান। শাহজাদপুরের উন্নয়নে এবারে তিনি সরাসরি কাজ করতে চান বলে জানিয়েছেন।


এই আসনে বিএনপির অন্য প্রার্থীদের কে নিয়ে আলোচনা হলেও শহিদ মাহমুদ গ্যাদনকে মূল প্রার্থী হিসাবে অনেকেই মনে করছেন।

 

 

কিউএনবি /বিপুল/২৩শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং/সন্ধ্যা ৬:৫৬