২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:২৭

সরিষাবাড়ীতে নিখোঁজের ২৭ ঘন্টা পর শিশুর লাশ উদ্ধার, আটক ৮

জাকারিয়া জাহাঙ্গীর, জামালপুর: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে নিখোঁজের ২৭ ঘন্টা পর  প্রথম শ্রেণি পড়ুয়া পলাশ মিয়া (৮) নামে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের কান্দারপাড়া গ্রামের পচা মন্ডলের বাড়ির পার্শ্ববর্তী পুকুরের গর্ত থেকে রবিবার রাত ৮টার দিকে মাটি চাপা অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়৷ এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ৮ জনকে আটক করেছে৷


পুলিশ ও পারিবারিক সুত্র জানায়, শনিবার বিকেলে কান্দারপাড়া গ্রামের রেজাউল ইসলামের ছেলে পোগলদিঘা বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র সাকিবের (১৩) কাছ থেকে একই গ্রামের মানিক মিয়ার ছেলে পলাশ মিয়া একশো টাকা দিয়ে একটি বাজিকর পাখি ক্রয় করে। ওই পাখির খাবার কেনার জন্য শিশু পলাশ মিয়াকে সে বয়ড়া বাজারে যাবার কথা বলে সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়৷ রাত হলেও পলাশ বাড়ি ফিরে না আসলে পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করে।


এদিকে রবিবার সকালে শিশু পলাশের মা পরমা খাতুনের মোবাইলে ০১৯০৫-৩৪৪২৬২ নম্বর থেকে ফোন করে ছেলেকে জীবিত উদ্ধারের শর্তে ৪০ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবি করে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি৷ পরে পলাশের বাবা মানিক মিয়া তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বিষয়টি লিখিতভাবে অভিযোগ করেন। পুলিশ এ ঘটনায় বাজিকর পাখি বিক্রেতা সাকিবকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এক পর্যায় সে পলাশকে শ্বাসরুদ্ধ করে  হত্যা করেছে বলে স্বীকার করে। তার তথ্যের ভিত্তিতে রবিবার রাত ৮টার দিকে নিহতের বাড়ির পার্শ্ববর্তী পচা মন্ডলের পুকুর পাড় থেকে মাটি চাপা অবস্থায় পলাশের লাশ উদ্ধার করে তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে আসে।


এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে একই এলাকার সাকিব (১৩), চান মিয়া (৫৫), মারুফ (৪০), জরিনা (৪৫), রেজাউল (৪৫), গহুর বাদশা (৫০), আশিক (১৫) ও সাব্বিরকে (১২) আটক করে পুলিশ৷


বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ওসি রেজাউল ইসলাম খান বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের প্রস্তুতি চলছে৷ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে আটককৃত ৮জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে৷

কিউএনবি/খায়রুজ্জামান/২২শে অক্টোবর ,২০১৭ ইং/রাত ১০:১৮