২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:২৫

ফরিদপুরে সাজেদা চৌধুরীর গাড়িবহরে হামলা, ওসি আহত

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার তালমা এলাকায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার পর সংসদ উপনেতার বহরের দুটি গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় নগরকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম আহত হয়েছেন।

 শুক্রবার বেলা ৩টার দিকে সরকারি সফরসূচি অনুযায়ী ঢাকা থেকে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার রসুলপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে তালমার মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। ইটের আঘাতে গাড়িবহরের সামনে থাকা সহকারী পুলিশ সুপারের (সার্কেল) গাড়ির কাচ ভেঙে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নগরকান্দা থানার ওসি এফ এম নাছিম জানান, শুক্রবার বেলা পৌনে ৩টার দিকে উপজেলার তালমা বাজার এলাকায় পোস্টার ছেঁড়া ও গেট ভাঙচুরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের কর্মীরা (সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর ছেলে আয়মন আকবর বাবলু চৌধুরী ও নগরকান্দা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল হোসেন মিয়া) সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এর কিছুক্ষণ পরেই সেপথ দিয়ে উপনেতা ২৫ থেকে ৩০টি গাড়ির বহর নিয়ে যাওয়ার সময় বিক্ষুব্ধ কিছু লোকজন তাদের গাড়িকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে।

ওসি জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের সময় ইটের আঘাতে তিনি আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। সংসদ উপনেতা ও তাঁর ছেলে সুস্থ আছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

নগরকান্দা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল হোসেন মিয়া বলেন, ‘তালমা বাজারে আমার ও আমার বাবার ডিজিটাল প্যানা (পোস্টার) ছিঁড়ে ফেলেন বাবলু চৌধুরীর লোকজন। এই খবর পেয়ে আমার লোকজন এসে তাঁদের বাধা দেন। এই নিয়েই দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।’

জামাল হোসেন মিয়া অভিযোগ করে বলেন, বাবলু চৌধুরী তাঁদের গাড়িবহর নিয়ে তালমা পৌঁছেই ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে বিক্ষুব্ধ কর্মীরা তাঁদের গাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন।

এ ব্যাপারে আয়মন আকবর বাবলু চৌধুরীর সমর্থক হিসেবে পরিচিত সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর গাড়িবহর তালমা মোড় অতিক্রম করার সময় কিছু লোকজন হামলা চালায়। তবে এ ঘটনায় সংসদ উপনেতা অক্ষত আছেন। তিনি তাঁর নিজ বাড়িতে এখন অবস্থান করছেন।

 

 

 

কিউএনবি/খায়রুজ্জামান/১৪ই অক্টোবর ,২০১৭ ইং/সকাল ৮:২৭