১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৪৭

ফরিদপুরে বারো মন ইলিশ জব্দ, ৪১ জেলের কারাদন্ড

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ইলিশের প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ ধরা নিষেধাজ্ঞা অমান্য কারা অপরাধে ফরিদপুরে ৪১ জেলের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় ১২ মন ইলিশ ও আট লক্ষ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করে পুড়িয়ে দিয়েছে।

ফরিদপুর জেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তরে উদ্যোগে প্রজনন মৌসুমে “মা ইলিশ সংরক্ষণ” অভিযানে পদ্মা নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়।

শুক্রবার ভোর রাত থেকে সকাল সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার চর নাসিরপুর, দিয়ারা নারিকেল বাড়ীয়া, ঢেউখালী ও আকুটের চরসহ পদ্মা নদীতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় জেলেদের বিভিন্ন ট্রলারে ১২ মন ইলিশ জব্দ করা হয়ে, জেলেদের ব্যবহৃত আট লক্ষ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।

আদালত পরিচালনাকারি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল চন্দ্র শীল জানান, অভিযানে ৪১ জন জেলেকে আটকরে প্রত্যেককে ১৫ দিনের বিনাশ্রম সাজা দেওয়া হয়েছে । সরকারি আদেশ অমান্য করায় আটককৃত জেলেদের দন্ড বিধি-১৮৬০ সালের ১৮৮ ধরায় মোতাবেক এই সাজা প্রদান করা হয়।

তিনি বলেন, জব্দকৃত কারেন্ট জাল সবার সম্মুখে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয় এবং ইলিশ মাছ সদরপুরের বিভিন্ন এতিমখানায় বন্টন করে দেয়া হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সজল চন্দ্র শীল। আদালতকে সহযোগিতা করেন সদরপুর  উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফাতেমা আক্তার পান্না ও সদরপুর থানা পুলিশের সদস্যরা।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল চন্দ্র শীল আরো বলেন, সরকারি আদেশে ১-২২ অক্টোবর পর্যন্ত প্রজনন মৌসুমে সকল প্রকার ইলিশ মাছ আহরন, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ, ক্রয়- বিক্রয় ও বিনিময় বন্ধ রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

 

 

কিউএনবি/খায়রুজ্জামান/৭ই অক্টোবর ,২০১৭ ইং/ সকাল ৯:০৫