১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৫:৪১

না’গঞ্জের সেই প্রধান শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত!

নিউজ ডেস্কঃ এ কেমন বিচার? প্রথমে কান ধরে উঠবস করিয়ে শিক্ষকে অবমাননা তারপর আবার তাকেই সাময়িক বরখাস্ত! নারায়ণগঞ্জে পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান  শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ  প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আমি ক্ষুব্ধ ও লজ্জিত, শিক্ষকের অবমাননাকারীদের অবশ্যই শাস্তি হবে। হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে।e4642248351bdd6cb5c31c3b20026155-573af4f3b588b

শিক্ষক শ্যামল কান্তি জানান, “আমি স্কুলের শুরু থেকেই চাকুরি করে আসছি। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরেই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি চাচ্ছে না আমি ওই প্রধান শিক্ষকের পদে থাকি। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ফারুকুল ইসলামের বোন পারভীন আক্তারকে প্রধান শিক্ষক করতেই মূলত চেষ্টা করা হয়।এছাড়া স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির তিনজন সদস্য মতিউর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসের পিয়ন মিজানুর রহমান ও মোবারক হোসেন এ তিনজন মিলেই আমাকে পদচ্যুত করার চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। পুরোটা পরিকল্পিত ও সাজানো। আমি আসলে পলিটিক্স বুঝতে পারি নাই। সে কারণেই আমার ওপর অপবাদ দেওয়া হয়”

তিনি আরও বলেন, মতিউর রহমানের নেতৃত্বে মিজানুর রহমান ও মোবারক হোসেন মিলেই শুক্রবার হামলা চালায় এবং আমাকে মারধর করে। সেদিন আমার প্রাণনাশের জন্য হামলা চালানো হয়েছে। মতিউর রহমান আমাকে শায়েস্তা করা হবে বলে ঘটনার একদিন আগে হুমকি দিয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত, ৯ মে দশম শ্রেণির এক  ছাত্রকে শারীরিক শাস্তি দেন ওই শিক্ষক।পরে গত ১৩ মে তার বিরোধীপক্ষ মাইকে ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের উপস্থিতিতে তাকে শাস্তির নামে চরম অবমাননা করা হয়।এ সময় শাস্তির নামে তাকে কান ধরে উঠবসও করানো হয়।

কুইকনিউজবিডি.কম/টিআর/১৭.০৫.২০১৬/১৬:০৭