২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:২৮

যুবলীগের এক নেতা হত্যা মামলায় আরেক নেতা গ্রেপ্তার

 

ডেস্কনিউজঃ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় কালিয়াকৈর উপজেলার বারইপাড়া এলাকা থেকে আটাবহ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন ওরফে শাকিল মোল্লাকে (৩৫) গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার সাখাওয়াত ওরফে শাকিল কালিয়াকৈরের আটাবহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন মোল্লা ওরফে অলু মোল্লার ছেলে।

পিবিআই গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাসির আহমেদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্ধ্যায় বারইপাড়া এলাকা থেকে যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম হত্যা মামলার পলাতক আসামি শাকিল মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে পিবিআইর একটি টিম। গ্রেপ্তার শাকিলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও পিবিআই গাজীপুরের উপপরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম জানান, ২০১৫ সালের ২১ আগস্ট কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজ মাঠে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক ও গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান চলাকালে পাশেই চায়ের দোকানের সামনে দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের এলোপাতাড়ি কোপে ও মারধরে খুন হন কালিয়াকৈর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম (৪৫)।

এ ব্যাপারে ঘটনার পরদিন রাতে নিহতের বড় ভাই মো. মোতালেব হোসেন বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আকবর আলী, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোশারফ হোসেন সিকদার, উপজেলা বিআরডিবি সভাপতি শিকদার জহিরুল ইসলাম, কালিয়াকৈর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক খাত্তাফ মোল্লা।

আজ গ্রেপ্তার শাকিল মোল্লা ওই মামলার সম্পূরক আসামির তালিকার ৮ নম্বর আসামি।

প্রথমে গাজীপুর ডিবি পুলিশ ও পরে গাজীপুর সিআইডি এই মামলার তদন্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। কিন্তু বাদী আপত্তি জানালে প্রায় চার মাস আগে ওই মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় পিবিআইকে।

 

কিউএনবি/বিপুল/৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং/রাত  ৯:২৬