ব্রেকিং নিউজ
২৬শে জুন, ২০১৯ ইং | ১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৩৭

গৃহবধূর শরীরে সুচ ফুটিয়ে নির্যাতন!

 

ডেস্কনিউজঃ বরগুনার আমতলী উপজেলায় রিপা আকতার নামের এক গৃহবধূকে তাঁর স্বামী নির্মম নির্যাতন করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রিপার হাত-পা বেঁধে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে তাঁর স্বামী পেটান। এরপর তাঁর শরীরে সুচ ফোটান। দুই দিন কোনো খাবার না দিয়ে তাঁকে ঘরে আটকে রাখেন। স্বজনেরা গত মঙ্গলবার রাতে রিপাকে উদ্ধার করে আমতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১৫ মে উপজেলার খুড়িয়ার খেয়াঘাট গ্রামের রিপার (১৮) সঙ্গে সেকান্দারখালী গ্রামের হানিফ হাওলাদারের (৩৫) বিয়ে হয়। এই দম্পতির চার মাসের একটি ছেলে রয়েছে। এই সন্তান হওয়ার পর ব্যবসা করার কথা বলে হানিফ শ্বশুরবাড়ি থেকে ৫০ হাজার টাকা যৌতুক আদায় করেন। গত শুক্রবার হানিফ আবার দুই লাখ টাকা এনে দিতে রিপাকে চাপ দেন। রিপা অপারগতা প্রকাশ করেন। এ কারণে তাঁকে নির্যাতন করা হয়।

রিপা গতকাল বুধবার প্রথম আলোকে বলেন, রোববাররাত সাড়ে নয়টার দিকে স্বামী তাঁর (রিপা) দুই পা ও হাত রশি দিয়ে এবং মুখমণ্ডল ওড়না দিয়ে বেঁধে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝোলান। পরে সুপারিগাছের চেলা দিয়ে তাঁকে বেদম প্রহার করেন। প্রায় আধা ঘণ্টা পরে তাঁকে নামানো হয়। এরপর ঘরের মেঝেতে ফেলে লজ্জাস্থানসহ তাঁর সারা শরীরে সুচ ফুটিয়ে নির্যাতন করা হয়। একপর্যায়ে তিনি (রিপা) মূর্ছা যান। সংজ্ঞা ফিরে পান প্রায় দুই ঘণ্টা পর। এরপর তাঁর স্বামী প্লাস দিয়ে তাঁর হাত ও পায়ের নখে চাপ দেন। এভাবে রাতভর চলে নির্যাতন। গত সোমবার বিকেলে প্রতিবেশীর মাধ্যমে খবর পেয়ে মা রিনা বেগম গিয়ে রিপাকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু হানিফ তাঁকে আসতে দেননি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রিপার চাচা আনোয়ার হোসেন হাওলাদার ও হানিফের মামা মোশাররফ হাওলাদার গিয়ে রিপাকে উদ্ধার করে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক আবদুল মতিন বলেন, নির্যাতনের শিকার এই গৃহবধূর শরীর ফুলে গেছে। তিনি যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন। তাঁর চিকিৎসা চলছে।

রিপার স্বামী হানিফ পলাতক। একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

আমতলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নুরুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখে এসেছি। তাঁর চিকিৎসা চলছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

কিউএনবি/তানভীর/২১শে সেপ্টেম্বর,,২০১৭ ইং/সকাল ৯:৩৪

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial