১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:০০

আ. লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশ কনস্টেবল নিহত

 

 

ডেস্কনিউজঃ নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে হাটের টাকার ভাগাভাগি ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য নিহত ও ৩০ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত টেটাবিদ্ধসহ ১০ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে আড়াইহাজার উপজেলার নদী পরিবেষ্টিত প্রত্যন্ত চরাঞ্চল কালাপাহাড়িয়া এলাকার রাধানগর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের সময় কমপক্ষে চারটি ঘরে অগ্নিসংযোগসহ  ১০টি বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মতিয়ার রহমান।

নিহত পুলিশ কনস্টেবল রুবেল মাহমুদ সুমন ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম ইউনিটে কর্মরত ছিলেন। তিনি ঈদের ছুটিতে বাড়িতে এসে সংঘর্ষে জড়িয়ে নিহত হন।

পুলিশ জানায়,  উপজেলার মেঘনা নদী পরিবেষ্টিত চরাঞ্চল কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের রাধানগর স্কুল মাঠে গরুর হাট বসায় আওয়ামী লীগ নেতা রুপ মিয়া, ফরিদ হোসেন, মহিউদ্দিনসহ কয়েজন নেতাকর্মী। হাটের হাসিল আদায়ের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে শুক্রবার বিকেলে রুপ মিয়া পক্ষের সাথে ফরিদ, মহিউদ্দিন পক্ষের লোকজনের সংঘর্ষ বাধে। উভয় পক্ষের লোকজন টেটা-বল্লম, জুইত্তা, লোহার রড নিয়ে এক পক্ষ আরেক পক্ষের ওপর ঝাপিয়ে পড়ে।

টেটাবিদ্ধ ও কুপিয়ে মারাত্মক আহত পুলিশ কনস্টেবল রুবেল মাহমুদ সুমনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া টেটাবিদ্ধ অবস্থায় আহত আরো ১০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মতিয়ার রহমান জানান, গরুর হাটের টাকা ভাগাভাগি ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ছুটিতে আসা পুলিশ কনস্টেবল রুবেল মাহমুদ নিহত হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 

কিউএনবি/বিপুল/২রা সেপ্টেম্বর ,২০১৭ ইং/ ৯:৫৬