১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৩৫

কিশোরীকে আটকে রেখে ‘ধর্ষণ’, যুবলীগের দুই নেতা গ্রেপ্তার

 

ডেস্কনিউজঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলায় ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীকে গণধর্ষণের মামলায় যুবলীগের দুই নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মহিষলুটি এলাকা থেকে ওই দুইজনকে গ্রেপ্তার করে তাড়াশ থানা পুলিশ। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন সাকুয়াদিগি গ্রামের মহিরউদ্দিন ও আনিছুর রহমান। মহির উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়ন যুবলীগের তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আর আনিস একই ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহসভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানানো হয়েছে সংগঠনটির পক্ষ থেকে।

পুলিশের হেফাজতে থাকা ওই কিশোরী মঙ্গলবার রাতে সাংবাদিকদের জানায়, সে তিনদিন আগে ছোট ভাইকে নিয়ে তাড়াশে বড় বোনের বাড়িতে যায়। পরে মঙ্গলবার বিকেলে দুইভাইবোন মিলে চলনবিল দেখতে যায়। পথে আনিসুর রহমান কৌশলে তাদের ব্যাটারিচালিত অটোরিক্শায় তুলে নিয়ে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে আটকে রাখে।

সন্ধ্যার পর ওই বাড়ি থেকে কিশোরীর ছোট ভাইকে সরিয়ে নিয়ে যায় তারা। এরপর রাত সাড়ে ৮টার দিকে আনিস ও তাঁর বন্ধু মহির এসে ধর্ষণ করে তাকে। সে সময় চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গেলে পালিয়ে যায় আনিস ও মহির।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তাড়াশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফজলে আশিক বলেন, উদ্ধারের পর ওই কিশোরীকে থানায় রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতেই সে বাদী হয়ে মহির ও আনিসের নামে ধর্ষণ মামলা করে। ঘটনার পর কিশোরীর ছোট ভাই নিখোঁজ হয়েছে দাবি করা হয়। তাকে এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) সাচ্চু বিশ্বাস জানান, কিশোরীটি তার বোনের বাড়ির যে ঠিকানা দিয়েছে, বুধবার সকালে সে ঠিকানায় তাঁদের খুঁজে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে সে ভুল তথ্য দিয়েছে।

নওগাঁ ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কোরবান আলী জানান, খবর পেয়ে তাঁরা মেয়েটিকে উদ্ধার করে মহিষলুটি আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে রেখে দেন। পরে পুলিশ এসে মেয়েটিকে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আবদুল হাই বলেন, নওগাঁ ইউনিয়ন যুবলীগের তথ্য বিষয়ক সম্পাদক ও মহিষলুটি হাটের টোল উত্তোলনকারী মহির এবং ছয় নম্বর ওয়ার্ডের যুবলীগের সহসভাপতির দায়িত্বে আছেন আনিস। তবে তাঁরা ধর্ষণের সঙ্গে সম্পৃক্ত আছেন কি না, তা জানেন না তিনি।

এদিকে, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে তাড়াশ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, শিগগিরই দলের জরুরি সভা ডেকে স্থানীয় যুবলীগ নেতা মহির ও আনিসকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। এজন্য ওই ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

 

কিউএনবি/বিপুল/২৪শে আগস্ট ,২০১৭ ইং/রাত ১২:২৩