২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৫৮

এজলাসে হাঁটু পানি, রাস্তায় চলছে আদালতের কার্যক্রম

 

ডেস্কনিউজঃ আদালত ভবনের ভেতরে বন্যার পানি ওঠায় ভবনের সামনে রাস্তায় খোলা আকাশের নিচেই রোববার চলে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলা আমলী আদালতের বিচারিক কার্যক্রম।

আদালতের সামনের রাস্তার ওপর খোলা জায়গায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. হাসিবুল হক আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

বৃহস্পতিবার আদালতের অভ্যন্তরে বন্যার পানি ঢুকতে শুরু করে। যমুনার পানি কমতে শুরু করায় রোববার বিকেল থেকে পানি কিছুটা কমতে শুরু করেছে।

এদিকে, যমুনা নদীর পানি কমা অব্যাহত রয়েছে। জেলা পয়েন্টে যমুনার পানি গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২১ সেঃমি হ্রাস পয়েছে। রোববার সন্ধায় যমুনার পানি বিপদ সীমার ৮৯ সেঃমি ওপরে রয়েছে।

শাহজাদপুর আমলী আদালতের জেনারেল রেকর্ড কীপার (জিআরও) আতাউর রহমান জানান, সকালে পানি একটু বেশি হলেও বিকেল থেকে কমতে শুরু করে। রোববার রাস্তার ওপর চেয়ার, টেবিল ও ব্রেঞ্চ নিয়ে নিজ নিজ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। রাস্তার ওপরই বিচারক খুব কষ্টে আদালতের কাযক্রম পরিচালনা করেন।

তিনি বলেন, বিকেল ৫টা পর্যন্ত এভাবেই আমরা রাস্তার ওপর ছিলাম। বন্যার পানি বৃহস্পতিবার বিকালে আদালতে প্রবেশ করে। বর্তমানে আদালত ভবনের অভ্যন্তরে পুলিশ ব্যারাক, এজলাস, মালখানাসহ সব কক্ষে হাঁটু পানি রয়েছে। জরুরি কাগজপত্র ভবনের মধ্যে আসবাবপত্রের উপরে রেখে দেওয়া হয়েছে। বিচারক, আদালতে কর্মচারী, আইনজীবী ও আইনজীবী সহকারীদের কলার ভেলায় করে আদালতে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম বলেন, একজন জজ ও একজন ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে উপজেলা আমলী আদালতটি পরিচালিত হয়। বিচার প্রার্থীদের কথা বিবেচনায় কিছু সমস্যা থাকলেও খোলা আকাশের নিচে রাস্তার ওপরেই আদালতের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এজলাসে হাঁটু পানি, রাস্তায় আদালত কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

কিউএনবি/তানভীর/২১শে আগস্ট ,২০১৭ ইং/সকাল ১০:৫০