১৮ই জুন, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৫৮

আশ্রয় এর জন্ম হোল বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে

 

ডেস্কনিউজঃ এবার বন্যা আশ্রয়কেন্দ্রে জন্ম নিল এক ফুটফুটে শিশু। আর তার নাম রাখা হয়েছে আশ্রয়। ঘটনাটি ঘটেছে জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভা কার্যালয়ের আশ্রয়কেন্দ্রে।

জানা যায়, শহরের পৌর কার্যালয়ে বন্যাদুর্গত ব্যক্তিদের জন্য খোলা হয়েছে এই একটি মাত্র আশ্রয়কেন্দ্র। সেখানে আশ্রয় নিয়েছে ২৫০ জন বানভাসি মানুষ। ওই আশ্রিতদের মধ্যে ছিলেন আরামনগর এলাকার রাজন বাসফোরের (৩৫) অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী টনি বাসফোর (৩০)। গত রোববার ওই আশ্রয়কেন্দ্রেই টনি এক ফুটফুটে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। আজ বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পৌরসভার মেয়র মো. রুকনুজ্জামান নবজাতকটির নামকরণ করেন। আশ্রয়কেন্দ্রে জন্মগ্রহণ করায় তিনি শিশুটির নাম দেন আশ্রয় বাসফোর।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত অন্যদের মতামত নিয়েই তিনি এই নামকরণ করেন। শিশুটির নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই উপস্থিত সবাই করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানান। অনুষ্ঠানে পৌরসভার সচিব আবু সাঈদ, পৌর কাউন্সিলর আবদুস ছাত্তার, জহুরুল ইসলাম, পৌর ভান্ডার রক্ষক হুমায়ুন কবির, সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


পৌরসভা কার্যালয় ও নবজাতকের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার থেকে সরিষাবাড়ীতে বানের পানি বাড়তে থাকে। এ জন্য পৌরসভার মেয়র মো. রুকনুজ্জামান পৌরসভা কার্যালয়ে বানভাসি মানুষের জন্য আশ্রয়কেন্দ্র খোলেন। সেখানে পৌর শহরের ২৫০ জন বানভাসি আশ্রয় নেন। তাদের তিন বেলা খাবারের ব্যবস্থাও করেছেন মেয়র। গত রোববার সকালে ওই আশ্রয়কেন্দ্রে রাজন বাসফোর তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী টনি বাসফোরকে নিয়ে আসেন। ওই দিন দুপুরেই টনির প্রসববেদনা ওঠে। পরে আশ্রয়কেন্দ্রের একটি কক্ষে টনি বাসফোর স্বাভাবিকভাবে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় পৌরসভা আশ্রয়কেন্দ্রে নবজাতক শিশুটির নাম রাখার জন্য পৌর মেয়রের উদ্যোগে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মেয়র মো. রুকনুজ্জামান বলেন, আমাদের আশ্রয়কেন্দ্রে পাঁচ দিন আগে এক বধূ নবজাতক শিশুর জন্ম দিয়েছেন। আশ্রয়কেন্দ্রে জন্ম নেওয়া নবজাতক অতিথির নাম রাখা হয়েছে আশ্রয় বাসফোর। শিশুটির মা টনি বাসফোর বলেন, মেয়র স্যারে ছেলের নাম রেখেছে আশ্রয় বাসফোর। এতে আমরা খুশি হয়েছি। শিশুটির বাবা রাজন বাসফোর বলেন, আশ্রয়কেন্দ্রে আমার কোলজুড়ে নতুন অতিথি আইছে। আমরা আকাশের চাঁদ হাতে পাইছি। স্যার আমগো ছেলের নাম দিয়েছে আশ্রয়। স্যারের সহায়তায় আমরা ছেলে ও আমাদের সব সুবিধা পাইতাছি।

 

কিউএনবি/বিপুল/১৮ই আগস্ট, ২০১৭ ইং/রাত ১২:২৮

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial