১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:৩৪

ছাতকে পিয়াস খুনের চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে নুরুজ্জামিন

 সদরুল আমিন, ছাতক (সুনামগঞ্জ)::  ছাতকে ভাড়ায় নিয়ে সিএনজি চালককে পরিকল্পিত হত্যাকান্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে ওসমানীনগর থানার গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের বুরুঙ্গা গ্রামে ১৩আগষ্ট গ্রেফতারকৃত নুরুজ্জামিন (২০)। মঙ্গলবার (১৫আগষ্ট) সুনামগঞ্জ আদালতে দেয়া ৬৪ধারার জবানবন্দিতে নিজেকে ঘটনার ২য় নায়ক উল্লেখ করে খুনের ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে সে জানায়, জনৈক গডফাদারও ঘটনার প্রধান নায়কের নেতৃত্বে কয়েকজন মিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ৭আগষ্ট রাতে সিলেটে যাবার কথা বলে প্রনয় চৌধুরী পিয়াস এর সিএনজি ভাড়া করে। ১৩আগষ্ট নুরুজ্জামিন গ্রেফতারের পর থানায় পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে পিয়াস হত্যাকান্ডের চাঞ্চল্যকর ও লোমহর্ষক তথ্য দেয়। নুরুজ্জামিন দক্ষিণ খুরমা ইউপির মায়েরকূল গ্রামের চেরাগ আলীর পুত্র। ১০আগষ্ট সিংচাপইড় ইউপির হাওর থেকে লাশ উদদ্ধারের পর ১৩আগষ্ট পিয়াসের পিতা খুরমা গ্রামের প্রনয় চৌধুরী কুটু বাদী হয়ে ছাতক থানায় একটি হত্যা মামলা (নং ১৪, তাং ১৩.০৮.২০১৭ইং) দায়ের করেন। ৭আগষ্ট নিখোঁজের পর ৮আগষ্ট দোলারবাজার ইউপির খাইরগাঁও  থেকে পিয়াসের পরিত্যাক্ত সিএনজি উদ্ধারের পর ও একই তারিখে সিংচাপইড় ইউপির সিরাজগঞ্জবাজারের নানকার রবিদাসের পুত্র স্বপন রবিদাসকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এব্যাপারে মামলার তদন্ত অফিসারও ছাতক থানার  সাব-ইন্সপেক্টর এসআই সুহেলরানা জানান, ওসমানীনগরের বুরুঙ্গা থেকে নুরুজ্জামিনসহ দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নুরুজ্জামিন ছিল ঘটনার সেকেন্ড ইন্ কমান্ড। তবে সে পরিকল্পিত হত্যাকান্ডের ব্যাপারে আদলতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তার কাছ থেকে পাওয়া গেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। ঘটনার সাথে কারা জড়িত ছিল তদন্তের স্বার্থে এব্যাপারে আর কিছু বলা যাচ্ছেনা বলে এলাকাবাসিকে খুনের তথ্য উদঘাটনে সার্বিক সহযোগিতা করার আহবান জানান।

 

কিউএনবি/রিয়াদ /১৫ই আগস্ট, ২০১৭ ইং /সন্ধ্যা ৬:৪১