২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:১০

খুন হওয়া বাবা-মা ও মেয়ে ছিলেন হত্যা মামলার সাক্ষী

 

ডেস্কনিউজঃ পটুয়াখালীর গলাচিপায় বাবা-মা ও মেয়েকে হত্যার পেছনে, আগের একটি হত্যা মামলাকেও আমলে নিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। জানা গেছে, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এর আগে খুন হয়েছেন এই পরিবারের একজন। যে মামলায় সাক্ষী ছিলেন বুধবার নিহত দেলোয়ার, তার স্ত্রী পারভীন ও মেয়ে কাজলি। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, আগের হত্যা মামলার বিচার না হওয়ায়, ওই মামলার আসামিরাই এবারের হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

একসাথে বাবা-মা ও মেয়েকে হত্যা। মঙ্গলবার পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার ছৈলাবুনিয়ায় ঘটেছে এমন নির্মম ঘটনা। এরইমধ্যে এ ঘটনায় মামলাও হয়েছে। এই পরিবারে খুন এটিই প্রথম নয়। গেলো ১১ ফেব্রুয়ারি জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে খুন হন এই গ্রামের ইদ্রিস মোল্লার ছেলে শফিক।

ঘটনার পর তার বাবা ইদ্রিস মোল্লা ২০ জনকে আসামি করে মামলা করেন। যেখানে সাক্ষী ছিলেন, তার ভাই দেলোয়ার, স্ত্রী পারভীন ও মেয়ে কাজলি। এই তিনজনের খুনের পেছনে শফিক হত্যা মামলার আসামিরা জড়িত থাকতে পারেবন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে, হত্যাকারী যেই হোক, তার দ্রুত বিচার চেয়েছেন নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী।

আইনশৃঙ্খলাবাহিনী বলছে, মামলায় সাক্ষী হওয়ার কারণে মা বাবা ও মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেইসাথে, এই ঘটনায় তৃতীয় কোনো পক্ষ কলকাঠি নাড়লে তাকেও ছাড় নয় বলে হুঁশিয়ারি তাদের।

শফিক হত্যায় ২০ জনকে আসামি করা হলেও, ট্রিপল মার্ডারের এই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সুনির্দিষ্টভাবে কারো নাম উল্লেখ করা হয়নি।

 

কিউএনবি/তানভীর/৪ঠা আগস্ট,২০১৭ ইং/সন্ধ্যা ৭:০৩