২২শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:০৪

জলদস্যু আতঙ্কে ইলিশ শিকারে যেতে পারছে না মনপুরার জেলেরা

 

ডেস্কনিউজঃ মৌসুমের শুরুতে জলদস্যু আতঙ্কে নির্বিঘ্নে ইলিশ শিকারে যেতে পারছে না ভোলার মনপুরার জেলেরা। গত ২ মাসে হামলা-লুটপাটের শিকার হয়েছে অর্ধশতাধিক জেলে ট্রলার। হাতিয়া ভিত্তিক জলদস্যুরা অপহরণ করে নিয়ে গেছে ২৩ জেলেকে। মুক্তিপণ দিয়ে অপহৃত জেলেদের জীবন রক্ষা পেলেও বাড়ছে মহাজনের দাদনের বোঝা। এদিকে, অধিক ইলিশ শিকারের আশায় রক্ষা কবজ হিসেবে দস্যুদের কাছ থেকে গোপনে ‘টোকেন’ নিচ্ছে অনেক জেলে। তবে, জলদস্যু নিয়ন্ত্রণে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ ও কোস্টগার্ড।

গারা বছর অপেক্ষার পর আষাঢ়ের বৃস্টির সাথে সাথে ইলিশ ধরতে নদীতে ছোটেন মেঘনা পাড়ের জেলেরা। কিন্তু মনপুরার মেঘনায় ইলিশ শিকারে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে হাতিয়ার জলদস্যু খোকন, বাচ্চু ও সালাউদ্দিন বাহিনী। মেঘনার জাগলার চর ও মৌলভীর চরের আস্তানা থেকে দস্যুরা আক্রমণ চালিয়ে জাল, মাছ, ট্রলারসহ মাঝি-মাল্লাদের অপহরণ করে নিয়ে যায়।

গত ২ মাসে মনপুরার বিভিন্ন ঘাটের অপহৃত ২৩ জেলে ৫০ হাজার থেকে ২লাখ টাকা পর্যন্ত মুক্তিপণ দিয়ে দস্যুদের কবল থেকে ছাড়া পেয়েছে। মৌসুমের বাকি সময় নিবিঘ্নে ইলিশ শিকারের জন্য জলদস্যুদের কাছ থেকে মোটা অংকের বিনিময়ে ‘টোকেন’ সংগ্রহ করছে অনেকে। হামলার শিকার জেলেরা বলেন, জেলেদের রাত্রে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপরে চরে বেঁধে রাখে। টাকা নেয় হুমকি ধামকি দেয়।

জলদস্যুদের হামলা- লুটপাটের কারণে জেলে ও মাছ ব্যবসায়ীরা ক্ষতির মুখে পড়ছে উল্লেখ করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর জোরালো পদক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। মনপুরা উপজেলা চেয়ারম্যান অপহরণকারী ২০ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে । এই পরিস্থিতি উত্তরণে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যে জোর দাবি জানাচ্ছি।

দস্যুদের কবল থেকে জেলেদের রক্ষা ও নিরাপদে মাছ ধরা নিশ্চিত করতে নিয়মিত টহলের কথা জানালেন পুলিশের কর্মকর্তা। তিনি বলেন, দুই পাশ থেকে রাত্রে দুইটা নৌ টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যার ফলে জেলেরা নিরাপদে মাছ ধরতে পারছে।

জলদস্যুদের অপতৎপরতা রুখতে নিয়মিত অভিযানের পাশাপাশি নিয়ন্ত্রণে জিরো ট্রলারেন্স অবস্থানের কথা জানালেন কোস্টগার্ডের কর্মকর্তা। তিনি বলেন, কোষ্টগার্ড সব সময় প্রস্তুত কোন ধরনের তথ্য পেলে ওই সব জায়গায় যাবে। জেলেদের যে ধরনের সহায়তা দরকার তা প্রদান করা হবে।

চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে ৫৭টি অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ১৮ জলদস্যুকে গ্রেফতার করেছে কোস্টগার্ড। জাল-ট্রলারসহ উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত ৪৫ জেলেকে।

 

 

কিউএনবি/তানভীর /৩১শে জুলাই, ২০১৭ ইং/ বিকাল ৩:৪৩