১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:২৭

হাটহাজারীতে দূর্বৃত্তদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে এক অসহায় পরিবার

 

হাটহাজারী প্রতিনিধি : চট্রগ্রামের হাটহাজারীতে বাড়িঘর লুন্ঠন করে আগুন ধরিয়ে দেয় দূবৃত্তরা। এরপর থেকে দূর্বৃত্তদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবারটি। চরম অসহায় অবস্থায় দিন কাঠাচ্ছে পরিবারটি। গত ২৪ মে হাটহাজারী উপজেলার ১১নং ফতেপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডস্থ হেলাল চৌধুরী পাড়ার মোঃ ইদ্রিস চৌকিদারের বাড়িতে হামলা চালায় দূর্বৃত্তরা। এই সময় তারা বড়িতে উক্ত পরিবারের লোকজনদের জিম্মি লুটপাট করে।

তারা প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা জিনিস পত্র নিয়ে যায়। পরিবারের স্বজনদের দাবী এতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। পরে উক্ত ঘটনার একদিন পরই ২৫ মে উপজেলার মদনহাটস্থ ওই পরিবারের এক সদস্যর দোকানে হামলা চালায় অজ্ঞাত পরিচয়ে ব্যক্তিরা এতে প্রায় দোকানের রক্ষিত টাকাসহ মালামাল নিয়ে যায়। এতে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করছে অসহায় পরিবারটি।ওই দুইটি ঘটনার পরই গত ২৬ জুন ঈদুল ফিতরের নামাজের পর হঠাৎই বেশ কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয়ে যুবক এসে উক্ত বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে তান্ডব চালায়।

সুত্রে জানা যায়, গত ২৪ মে, ২৫ মে ও সর্বশেষ গত ২৬ জুন ঈদুল ফিতরের নামাজের পর হঠাৎই বেশ কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয়ে যুবকরা উপজেলার ১১নং ফতেপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডস্থ হেলাল চৌধুরী পাড়ার মোঃ ইদ্রিস চৌকিদার (৮৫)’র বাড়িতে ঢুকে ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ চালায় এবং পরিবারের লোকজনদের ভয় ও মেরে ফেলার হুমকি দিলে তারা প্রাণের ভয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

এই তিনটি ঘটনায় প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। উক্ত বাড়িতে ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের সময় তারা বাড়িতে মূল্যবান জিনিস পত্র, গয়নাঘাটি লুঠপাট করে। এই সময় ঘরের মালিক ইদ্রিস চৌকিদাসহ অন্যসদস্যরা বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তাকে এবং তার স্ত্রীকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয় এবং বাড়ি ছেড়ে না গেলে হত্যার হুমকি দেয় বলে সূত্রে জানা গেছে।

উক্ত ৩টি ঘটনার প্রায় ১মাস ১৯দিন পার হয়ে গেলেও এখনো নিজ ঘরে ফিরতে পারছেন না অসহায় পরিবারটি। ফলে তারা বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এই অসহায় পরিবারটি বর্তমানে মানবতার জীবন কাটাচ্ছে।এ ঘটনায় এলাকাবাসী ও ভূক্তভোগিদের দাবী উক্ত ঘটানায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবী জানায় তারা।

 

 

 

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১৯শে জুলাই, ২০১৭ ইং/সকাল১১:৪৭