১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১১:৪৬

মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ সুরাইয়ার চাচা কামরুল গ্রেপ্তার

মাগুরার আলোচিত মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ সুরাইয়ার চাচা কামরুল ভুইয়া ওরফে ভুইয়া কামরুলকে অন্য একটি মামলায় পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

শনিবার রাতে মাগুরা শহরের বাড়ি থেকে কামরুলকে (৩৭) গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।বোরবার মাগুরা জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ফিরোজ মামুনের আদালতে হাজির করা হলে তাকে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।

কামরুল মাগুরা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।জেলা জজ আদালত পুলিশের জিআরও আভা রানী জানান, ডাকাতির প্রস্তুতির একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো আছে। গত ১৬ এপ্রিলের ঘটনায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

২০১৫ সালের ২৩ জুলাই মাগুরা শহরের দোয়ারপাড়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও বন্দুকযুদ্ধ হয়। সংঘর্ষে একপক্ষে কামরুল ভুইয়া অপর পক্ষে মাগুরা এজি একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এমএলএসএস ও আওয়ামী লীগকর্মী আলী আকবর ও যুবলীগ সদস্য আজিবর হোসেন ছিলেন বলে ওই সময় অভিযোগ ওঠে।

কিন্তু ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় কামরুলকে আসামি করা হয়নি।উভয়পক্ষের বন্দুকযুদ্ধের মধ্যে পড়ে মমিন ভূইয়া নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে ওই রাতেই মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। একই সংঘর্ষে গর্ভের শিশুসহ গৃহবধূ নাজমা বেগম গুলিবিদ্ধ হন। ওই রাতে মাগুরা সদর হাসপাতালে নাজমার অস্ত্রপচার হয় ও তার একটি মেয়ে হয়, পরে যার নাম রাখা হয় সুরাইয়া।

নাজমা কামরুল ভুইয়ার বড় ভাইয়ের স্ত্রী।মাতৃগর্ভে শিশু গুলিবিদ্ধের ঘটনাটি নিয়ে গণমাধ্যমে রিপোর্ট প্রকাশিত হলে সারাদেশে তোলপাড় শুরু হয়।

এ ঘটনার চার দিনের মাথায় ২০ অগাস্ট রাতে নিজ বাড়ির অদুরে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুক যুদ্ধে যুবলীগ সদস্য আজিবর নিহত হন। অন্যদিকে অপর আসামি আলী আকবর ১৬ সেপ্টেম্বর আদালতে আত্মসমর্পন করলে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

কিউএনবি/রেশমা/৪ঠা জুন, ২০১৭ ইং/ রাত ১০ :২০