২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:৫৭

লক্ষ্মীপুরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত,৩ পুলিশ আহত

মো: রাজিব হোসেন রাজু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, চাঁদাবাজি, অপহরণসহ ৮ টি মামলার আসামী আবু কাউছার ওরফে বড় কাউছার (৩০) পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, ৪টি কার্তুজ ও ৪টি ধারালো চুরি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায়  এস আই সহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। বন্দুকযুদ্ধে উভয়ের মধ্যে প্রায় ৩০ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়। তবে পুলিশ ১০ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ার কথা স্বীকার করেছে।
বুধবার রাত ৩টার দিকে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম লতিফপুর গ্রামের ৩ নাম্বার ব্রীজের মাথা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত কাউছার পশ্চিম লতিফপুর গ্রামের (হানিফ আলীর মোল্লা বাড়ীর) ইউনুছ মিয়ার ছেলে এবং আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, চন্দ্রগঞ্জ থানার এস আই কাউছার উদ্দিন চৌধুরী, কনষ্টেবল ইব্রাহিম খলিল ও মহসিন খান।

লক্ষ্মীপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) নাসিম মিয়া বৃহস্পতিবার সকালে সাংবাদিকদের জানায়,  ৮ মামলার আসামী বড় কাউছারকে নিয়ে লতিফপুর গ্রামের ৩নং ব্রিজের মাথা এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারের  অভিযানে যায় চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশ।
এ সময় কাউছারের সহযোগীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুঁলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ও পাল্টা গুলি ছুড়লে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে। এতে কাউছার গুলিবিদ্ধ হয়ে এবং আহত হয় পুলিশের ৩ সদস্য। পরে আহতদের ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কাউছারকে মৃত ঘোষনা করেন।
চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো: আজিজুল ইসলাম মিয়া জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, ৪টি কার্তুজ ৪টি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়। কাউচারের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর সদর থানা ও চন্দ্রগঞ্জ থানায় অস্ত্র ও ডাকাতিসহ ৮টি মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশের এ কর্মকর্তা। কুইকনিউজবিডি.কম/নাঈম/০৭-০৪-২০১৬/সময়ঃ ১১:০৪