১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ২:২২

শেষ রক্ষা হলো না হাওরের শেষ বাঁধটিরও

উজান থেকে নেমে আসা পানির ঢলে হাওরের প্রায় সব ফসল ডুবে গেলেও টিকে ছিল সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার শনির হাওর আর জামালগঞ্জ উপজেলার পাগনার হাওরের বোরো ধান। গত প্রায় ১৫ দিন ধরে হাজার হাজার নারী-পুরুষ শ্রম আর টাকা দিয়ে এ দুটি হাওরের বাঁধ রক্ষার শেষ চেষ্টা করছিল। এর মধ্যেই ধানে একটু পাকও লেগেছিল। শঙ্কা ঠেলে আশা জেগেছিল অসহায় কৃষকের বুকে। দু-একদিনের মধ্যেই শুরু হতো ফসল তোলার কাজ। কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেই চেষ্টা, স্বপ্ন, ভরসা ধুলিসাৎ হয়ে গেছে।

গতকাল রোববার বিকেলে বাঁধ ভেঙে তলিয়েছে শনির হাওরের ফসল। আর আজ সোমবার সকালে শেষ উরার কান্দা বাঁধ ভেঙে ডুবে গেছে পাগনার হাওরের ধান। এখন হাওরজুড়ে শুধুই রাশি রাশি জল, আর পাড়জুড়ে বোকাকান্না।

শনির হাওরে পানি ঢুকে প্রায় ১৩ হাজার হেক্টর বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। আর পাগনার হাওরে তলিয়ে গেয়ে ১৫ হাজার হেক্টর বোরো ফসল।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমি উপজেলা প্রশাসন নিয়ে হাওরে দিন কাটিয়েছি। অতিরিক্ত বস্তা দিয়েছি। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না।’

কিউএনবি/খায়রুজ্জামান /২৪শে এপ্রিল,২০১৭ ইং/দুপুর ২:২২