১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:০৯

রবিবার স্থগিত হওয়া ১৭৪ ইউপিতে ভোট

নিউজ ডেস্কঃ কাজী রকিবউদ্দিন আহমদের সময়ে নানা কারণে না হওয়া ১৭৪টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোট হচ্ছে আগামীকাল রবিবার। এরমধ্যে সাধারণ নির্বাচন হবে ৫৫টি ইউপিতে, উপ-নির্বাচন হবে ১০২টি ইউপিতে এবং বন্ধ ঘোষিত, মামলাজনিত বা অন্য কারণে স্থগিত হয়ে যাওয়ায় পুনরায় ভোটগ্রহণ হবে ১৭টি ইউপিতে।

ইসি সচিবালয় জানিয়েছে, এসব ইউপিতে সুষ্ঠু ভোট করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এরইমধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী অন্যান্য সামগ্রী পাঠানো হয়েছে। ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

জানা গেছে, ২১ জেলার ২৬ উপজেলায় সাধারণ নির্বাচন, ৪৯ জেলার ৯০ উপজেলায় উপ-নির্বাচন ও ১২ জেলার সংশ্লিষ্ট ইউপিতে পুনরায় ভোট হচ্ছে। সুষ্ঠু ভোটের আয়োজনে মাঠে পর্যাপ্ত আইনশৃঙখলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করেছে ইসি। ভোট সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে থাকছে পুলিশ-এপিবিএন-ব্যাটালিয়ন আনসারের ১৭৬টি মোবাইল টিম, ৯০ প্লাটুন বিজিবি, ৯০ প্লাটুন র্যাব এবং উপকূলীয় এলাকার ইউপিতে ৮ প্লাটুন কোস্ট গার্ড।

নিবার্চন কমিশনের এ সংক্রান্ত পরিপত্রে বলা হয়েছে, প্রত্যেক ইউপিতে পুলিশ-এপিবিএন-ব্যাটালিয়ন আনসারের ২টি মোবাইল টিম, বিজিবি ১ প্লাটুন, র‌্যাব ১ প্লাটুন এবং উপকূলীয় এলাকার ইউপিতে কোস্ট গার্ড ১ প্লাটুন রাখা হচ্ছে। ভোটের আগের দুইদিন, ভোটের দিন ও ভোটের পরের দিন মোট চার দিনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মাঠে থাকছে। এছাড়া বন্ধ ঘোষিত ভোট কেন্দ্রগুলোতেও পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থাকবে।

তৃণমূলের ভোটের বিষয়ে সিলেটের সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ মনির হোসেন বলেন, ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। নির্বাচনের পরিবেশ ভালো রয়েছে। নির্বাচনে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হবে।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন কমিশন ৫ বছরের জন্য দায়িত্ব নেন। এরপর কুমিল্লায় প্রথম বড় নির্বাচন সম্পন্ন করে ইসি। এছাড়া দুটি উপ নির্বাচন, একটি সিটি কর্পোরেশন ও স্থানীয় সরকারের ১৮টি নির্বাচন হয়েছে নতুন ইসির অধীনে।

কুইকনিউজবিডি.কম/খায়রুজ্জামান /১৫ই এপ্রিল ২০১৭ ইং/রাত ১১:৪৩