২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:৪৯

যুদ্ধ বিমানের অনুশীলন তাইওয়ান-যুক্তরাষ্ট্রের জন্য সতর্কতা : চীন

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের এক সরকারি কর্মকর্তা আজ বুধবার নিশ্চিত করেছেন যে, তাইওয়ানের কাছে সাম্প্রতিক সামরিক মহড়া দ্বীপের স্বাধীনতা সমর্থকদের এবং “বাহ্যিক বাহিনী”-কে সতর্ক করার জন্য করা হয়েছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এটি পরোক্ষ ইঙ্গিত হিসাবে কাজ করবে। বেইজিংয়ে তাইওয়ান অ্যাফেয়ার্স অফিসের (টিএও) মুখপাত্র মা জিয়াওগুয়াং বলেছেন, তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পাঁচ দিনের ব্যবধানে ১৫০ টি ফ্লাইটসহ দ্বীপের দক্ষিণ -পশ্চিমে আন্তর্জাতিক আকাশসীমায় ১৫৩টি পিপলস লিবারেশন আর্মির যুদ্ধবিমানের সন্ধান পেয়েছে।

এটি ১ অক্টোবর চীনের জাতীয় দিবস উদযাপনের সঙ্গে মিলে যাওয়া একটি উদ্বেগজনক বৃদ্ধি চিহ্নিত করেছে। কিন্তু বেইজিং এই সপ্তাহ পর্যন্ত পিএলএ মিশনগুলিকে নির্দিষ্ট কোনো দর্শকের সঙ্গে সংযুক্ত করেনি। “পিএলএ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমগুলি তাইওয়ানের স্বাধীনতাকে বিভক্ত করে এবং বাহ্যিক শক্তির হস্তক্ষেপকে লক্ষ্য করে,” নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মা। তিনি আরো বলেন, তাইওয়ান প্রণালীতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য এই কৌশলগুলি ছিল একটি “সম্পূর্ণ পদক্ষেপ”।

দ্বীপের প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তাইওয়ানের কাছে নিয়মিত যুদ্ধ বিমানের কার্যক্রম ২০১৯ সালের মার্চ মাসে ব্যাপক ভাবে শুরু হয়েছিল। অক্টোবরের শুরুর দিকে যখন আমেরিকান এবং ব্রিটিশ ক্যারিয়ার গোষ্ঠী পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগর থেকে দক্ষিণ চীন সাগরে যাত্রা করেছিল – তখন এটিকে চীন হুমকিস্বরূপ বলে মনে করেছিল।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী চিউ কুও-চেং গত সপ্তাহে বিধায়কদের বলেছেন, সামরিক বাহিনীতে যোগদানের পর চার দশকের মধ্যে ক্রস স্ট্রেট উত্তেজনা এখন “সবচেয়ে মারাত্মক” অবস্থায় রয়েছে। তিনি মূল্যায়ন করেছিলেন যে পিএলএ ২০২৫ সালের মধ্যে ন্যূনতম খরচে তাইওয়ান আক্রমণ করার ক্ষমতা অর্জন করবে।

সূত্র: নিউজ উইক।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১৩ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ/রাত ৮:১৪

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন