২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:১৬

দাদার বিরুদ্ধে পুতনীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ দাদাকে এক লাখ টাকা জরিমানা!

 

এস.এম.মজনুর রহমান, স্টাফ রিপোর্টার,মনিরামপুর (যশোর) : যশোরের মনিরামপুরে মাদ্রাসার ৬ষ্ট শ্রেনীর এক ছাত্রীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে দু:সম্পর্কের দাদা আবদুল জলিলের বিরুদ্ধে। ওই ছাত্রীর অভিযোগ, বাড়িতে কেউ না থাকার সুবাদে দাদা তাকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে গিয়ে ঘরের মধ্যে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়।আর এ ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সন্ধ্যার পর উপজেলার ঘিবা গ্রামে।জানাজানি হওয়ার পর স্থানীয়রা গভীর রাত পর্যন্ত শালিসী বৈঠকে দাদাকে একলাখ টাকা জরিমানা করেন।

এলাকাবাসী ও ওই নির্যাতিতার পরিবার জানান, উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়নের ঘিবা গ্রামের এক মুদি দোকানির ১০ বছর বয়সী মেয়ে মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী শনিবার সন্ধ্যার পর বাড়ির পাশে প্রতিবেশি দাদা আব্দুল জলিলের বাড়ির উঠান দিয়ে এক বান্ধবীর বাড়িতে যাচ্ছিলেন। এ সময় উঠান থেকে দাদা তাকে জোরপূর্বক ধরে ঘরের মধ্যে নিয়ে ধর্ষন চেষ্টা চালায়। এ সময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের কয়েকজন মহিলারা ছুটে আসলে দাদা পালিয়ে যায়। অবশ্য ঘটনার সময় দাদা আবদুল জলিলের বাড়িতে কেউ ছিলেননা। বিষয়টি জানাজানির হলে স্থানীয় মাতব্বর তারা ব্রিকসের মালিক জমশেদ আলীর নেতৃত্বে সিদ্দিকুর রহমান, ইব্রাহিম হোসেনসহ অন্যান্যরা এসে রাত ৮ টার দিকে লম্পট জলিলকে ধরে নিয়ে যান ওই ছাত্রীর পিতার দোকানের সামনে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, শালিসী বৈঠকে আবদুল জলিল তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ স্বীকার করে ক্ষমা ভিক্ষা চান। এক পর্যায়ে মাতব্বরেরা জলিলকে একলাখ টাকা জরিমানা করেন।এ ঘটনার পর থেকে ওই রাতেই জলির এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। কিন্তু ওই ছাত্রীর অভিভাবকরা জানান, তারা কোন অর্থকড়ি চাননা, তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন। তবে অভিযোগ রয়েছে শালিসী সভার কতিপয় মাতব্বরেরা এ ঘটনায় তাদেরকে মুখ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। এ ছাড়াও কোন মামলা মকদ্দমা না করার জন্য হুমকিও দিয়েছেন।ফলে লম্পট জলিলের বিরুদ্ধে তারা মামলা করতে ভয় পাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে ওই শালিসী বৈঠকের মাতব্বর তারা ব্রিকসের মালিক জামশেদ আলী একলাখ টাকা জরিমানা আদায়ের সত্যতা অস্বীকার করেছেন সাংবাদিকদের কাছে ।তবে বিষয়টি নিশ্চিত হতে জামশেদ আলীর মোবাইলফোনে একাধীকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।মনিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ করা হলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ /রাত ৯:০৮

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন