ব্রেকিং নিউজ
২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:০৯

ধর্ষণচেষ্টা মামলা তুলে না নেওয়ায় কিশোরীকে লাঠিপেটা, ভিডিও ভাইরাল

 

ডেস্ক নিউজ : কুমিল্লার দেবিদ্বারে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা তুলে না নেওয়ায় এক কিশোরীকে ও তাঁর মা-বাবাকে প্রকাশ্যে লাঠিপেটার নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের কুরছাপ পূর্বপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার নির্যাতনের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর বাবা মো. জামাল হোসেন। মামলার আসামিরা হলেন, কুরছাপ গ্রামের মো. নুরুল ইসলাম ও তাঁর  দুই ছেলে মো. কাউছার আহম্মেদ এবং মো. হাসান, দুই পুত্রবধূ আনিকা ও নারগিছ আক্তার।  
  
ভাইরাল হওয়া ৩২ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, ধর্ষণচেষ্টার মামলার আসামি মো. হাসানের বড় ভাই কাউছার আহম্মেদসহ অন্য আসামিরা প্রথমে ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর মাকে প্রকাশ্যে লাঠিপেঠা করেন। এসময় কাউছারকে স্থানীয় কয়েকজন থামানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে ওই কিশোরীর মা অচেতন অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকে। এর আগে গত ১৭ ও ১৮ আগস্ট বিকালে ওই কিশোরী ও তার বাবা জামাল হোসেনকে  প্রকোশ্যে মারধর করে কাউছার ও তার পরিরবার। 

মামলার বিবরণে জানা গেছে, চলতি বছরের ২৪ মে বিকাল ৩টায় ওই কিশোরীকে একটি খালি ঘরে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায় হাসান নামে এক যুবক। হাসান ওই কিশোরীর আপন চাচাতো ভাই। স্থানীয় লোকজন ওই কিশোরীকে ঘর থেকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় ওই কিশোরী বাবা মো. জামাল হোসেন কুমিল্লা আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি অভিযুক্ত হাসানকে আসামি দিয়ে ধর্ষণ চেষ্টার  মামলা দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয় হাসানের পরিবার। প্রথমে ওই কিশোরীর বাবা পরে ওই কিশোরীকে বেদম মারধর করেন। পরে গত ২০ আগস্ট দুুপুরে হাসানের বড় ভাই কাউছার ওই কিশোরীর মাকে প্রকাশ্যে রাস্তায় ফেলে লাঠিপেঠা করেন। 

ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর বাবা মো. জামাল হোসেন বলেন, মো.হাসান আমার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমি কুমিল্লা আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। মামলার পর থেকে মামলা তুলে নিতে কিছু প্রভাবশালীর সহযোগিতায় তারা আমাকে হুমকি দিতে থাকেন। মামলা তুলে না নেওয়ায় আমার স্ত্রীকে প্রকোশ্যে লাঠিপেটা করে। এর আগে আমার মেয়ে ও আমাকেও এভাবে রাস্তায় প্রকাশ্যে লাঠিপেটা করে  এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আরিফুর রহমান বলেন, ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর বাবা মো. জামাল হোসেন দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। দোষীদের গ্রেফতার করতে অভিযান চালানো হবে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/২৭শে আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ/দুপুর ১২:৪৫

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন