২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:৪০

আটোয়ারীর দুই শিক্ষকের শাস্তি চায় অবিভাবকরা

মো. নুর হাসান,পঞ্চগড় প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় কালিপদ বর্মণ ও জয়দেব চন্দ্র অধিকারী নামে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই সহকারী শিক্ষকের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও বিদ্যালয় থেকে বহিস্কারের দাবী জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট দুই বিদ্যালয়ের অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী ও অবিভাবকরা।

জানা গেছে, কালিপদ বর্মণ ঠাকুরগাঁও জেলার  রুহিয়া থানার চাপাতি এলাকার জগেশ চন্দ্র বর্মণের ছেলে ও রাধানগর হাজী সাহার আলী দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং জয়দেব চন্দ্র অধিকারী একই এলাকার  মৃত নীল মোহন অধিকারী ছেলে ও রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে দায়িত্বে রয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত দুই শিক্ষক কালিপদ ও জয়দেব দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন অসামাজিক কাজের সাথে জড়িত। কিছু দিন পূর্বেই ওই দুই শিক্ষকের প্রতিবেশী বাবুল হোসেন নামে এক ব্যক্তি তাদের অসামাজিক কাজে বাধা প্রদান করায় তারা বাবুলের উপর ক্ষিপ্ত  হয়ে যায়। পরবর্তীতে গত ৮ জুন বাবুল ঠাকুরগাঁও যাওয়ার সময় কালিপদ ও তার সঙ্গীরা বাবুলকে আটকিয়ে বেধরক মারপিট করে এবং ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এসময় স্থানীয়রা দ্রুত তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে। পরে গত ১০ অক্টোবর কালিপদকে প্রধান আসামী করে জয়দেবসহ ৬ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। আদালতে কালিপদ, জয়দেবসহ বাকি আসামীরা জামিন নিতে গেলে আদালত কালিপদ বাদে সবার জামিন মঞ্জুর করলেও কালিপদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজত প্রেরণ করেন। তবে বর্তমানে কালিপদও কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

এছাড়াও ওই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অসামাজিক কাজে জড়িত থাকায় বিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের অবিভাবকরা পড়েছে চরম দূশচিন্তায় এবং তাদের সন্তানদের নিরাপত্তা নিয়েও রয়েছে উৎকন্ঠায়৷

ফলে ওই দুই বিদ্যালয়ের সহকারী  শিক্ষক কালিপদ ও জয়দেবের বিচার ও বিদ্যালয় থেকে অপসারণের দাবি জানিয়েছেন অভিভাবকেরা।

অভিভাবক’রা আরও জানায় দুই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ওই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তালবাহানা করছে। দুই শিক্ষকের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানায়।

এবিষয়ে অভিযুক্ত রাধানগর হাজী সাহার আলী দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কালিপদ বর্মণের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জয়দেব চন্দ্র অধিকারীর জানান, আমার বিরুদ্ধে যে মামলা ও অভিযোগ দেয়া হয়েছে তা পুরোপুরি মিথ্যা ও বানোয়াট।

এদিকে অভিযোগকারী বাবুল হোসেন জানান, কালিপদ বিভিন্ন  অসামাজিক কাজে জড়িত থাকায় তাকে বাধা প্রদান করায় সে আমাকে মারধর করেছে। সাথে জয়দেবও জড়িত রয়েছে। শিক্ষকরা যদি এমন কাজে জড়িত থাকে তাহলে প্রজন্ম শিখবে কি তাদের কাছে। 

এবিষয়ে রাধানগর হাজী সাহার আলী দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন জানান অভিযুক্ত শিক্ষক কালিপদ কে আমরা শোকজ করেছি, জবাব দিয়েছে, এখন পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক
জহিরুল ইসলামকে মুঠো ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

পঞ্চগড় জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শাহিন আকতার জানান, রাধানগর হাজী সাহার আলী দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কালিপদ বর্মণ ও রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জয়দেব চন্দ্র অধিকারীর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে এবিষয়ে স্ব-স্ব বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

কিউএনবি/রেশমা/২১শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ/দুপুর ১:৩৯

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন